বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গণপরিবহন বন্ধ থাকায় সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন বিভিন্ন উপজেলায় কর্মরত বেসরকারি চাকরিজীবীরা। তাঁরা সকাল থেকে নগরের অক্সিজেন মোড়, সিটি গেট ও কর্ণফুলী তৃতীয় সেতুর প্রবেশমুখে দীর্ঘ সময় গাড়ির জন্য অপেক্ষা করেন।

সকাল সাড়ে ৯টায় অক্সিজেন মোড়ে দেখা যায়, সিএনজিচালিত অটোরিকশাতে ওঠার জন্য উপজেলাগামী লোকজন অপেক্ষা করছেন। কিন্তু যাত্রীর তুলনায় অটোরিকশার সংখ্যা কম। মো. ইউসুফ নামের এক যুবক ফটিকছড়ি যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছিলেন। তিনি বলেন, অক্সিজেন মোড় থেকে বিবিরহাটের বাস ভাড়া ৪০ টাকা। কিন্তু এখন অটোরিকশা রিজার্ভ ছাড়া যাচ্ছে না। এ জন্য গুনতে হবে ৫০০ টাকা।

স্বাভাবিক সময়ে অক্সিজেন মোড় থেকে হাটহাজারী পর্যন্ত জনপ্রতি অটোরিকশার ভাড়া ৪০ টাকা। কিন্তু আজ ৫০-৬০ টাকার কমে কেউ যাত্রী তোলেনি। ভাড়া নিয়ে চালকের সঙ্গে ঝগড়াও লেগেছে অনেক ব্যক্তির। অক্সিজেন মোড়ের অটোরিকশাচালক মো. লিটন বলেন, লোকজনের তুলনায় গাড়ি কম। তাই ভাড়া অন্যদিনের চেয়ে কিছুটা বেশি নিচ্ছেন তিনি।

সকাল ৯টায় একই অবস্থা দেখা গেছে কর্ণফুলী তৃতীয় সেতু এলাকায়। গাড়ি না পেয়ে অনেকে হেঁটে কিংবা রিকশায় পটিয়া বা আনোয়ারার দিকে ছুটেছেন। স্কুলশিক্ষক কামাল হোসেন বলেন, ‘যাব চন্দনাইশে। কিন্তু কোনো গাড়ি নেই। অটোরিকশা জনপ্রতি ১২০ টাকা দাবি করছে।’ শহরের মধ্যে বিভিন্ন দূরত্বেও অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন