default-image

চাঁদাবাজির অভিযোগে রাজধানীর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ (ওসি) ছয়জনের বিরুদ্ধে ঢাকার আদালতে মামলা হয়েছে। ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দেন। আগামী ১৬ সেপ্টেম্বরের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলেছেন আদালত।

মামলায় যাঁদের নামে অভিযোগ করা হয়েছে, তাঁরা হলেন কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (ওসি) মিজানুর রহমান, উপপরিদর্শক (এসআই) পবিত্র সরকার, খালিদ শেখ, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) শাহিনুর রহমান, কনস্টেবল মো. মিজান ও পুলিশের সোর্স মো. মোতালেব।

মামলার বাদী হলেন মো. সোহেল। পেশায় তিনি ব্যবসায়ী। বাদী সোহেল দাবি করেন, পুরান ঢাকার ওয়াইজঘাটে তাঁর গতিরোধ করেন আসামিরা। তাঁর দেহ তল্লাশি করে ২ হাজার ৯০০ টাকা কেড়ে নেন। ওই টাকা ফেরত চাইলে আসামিরা তাঁকে ক্রসফায়ারের হুমকি দেন। পরে আসামিরা তাঁর পকেটে ২১৪ পিস ইয়াবা দিয়ে থানায় নিয়ে আটক করে রাখেন। খবর পেয়ে পরিবারের সদস্যরা থানায় গেলে আসামিরা পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। তাঁর পরিবারের সদস্যরা ২ লাখ টাকাও দেন। এরপর আসামিরা নন-প্রসিকিউশন মামলা দিয়ে তাঁকে আদালতে পাঠান। পরে তিনি জামিন পান।

মামলার অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চেয়ে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলেও কোতোয়ালি থানার ওসি ফোন ধরেননি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0