default-image

ঢাকার অদূরে নবাবগঞ্জে চার বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের দায়ে এক আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক তাবাসসুম ইসলাম এ আদেশ দেন। প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ওই আদালতের বেঞ্চ সহকারী আলমগীর হোসেন।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড পাওয়া আসামির নাম সুনীল বৈরাগী (৪২)। তিনি নবাবগঞ্জের বাসিন্দা।

রায় ঘোষণার পর সুনীলকে কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, ভুক্তভোগী শিশুটিকে ২০১৮ সালের ১ ডিসেম্বর আসামি সুনীল বৈরাগী তাঁর বাসায় ডেকে নেন। পরে তাকে মিষ্টি খেতে দেন।

একপর্যায়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করেন তিনি। অনেকক্ষণ বাসায় না ফেরায় শিশুটির খোঁজে তার মা সুনীল বৈরাগীর ঘরে যান। সেখানে রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটিকে দেখতে পান তিনি। তখন সুনীল ঘর থেকে দৌড়ে পালিয়ে যান। পরে শিশুটিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ডিএমসি) হাসপাতালের ওয়ান–স্টপ ক্রাইসিস (ওসিসি) সেন্টারে ভর্তি করা হয়।

বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে সুনীলের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে নবাবগঞ্জ থানায় মামলা করেন।

মামলার তদন্ত শেষে গত বছরের ১৬ এপ্রিল সুনীলের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় নবাবগঞ্জ থানার পুলিশ।

আদালত এ অভিযোগপত্র আমলে নিয়ে গত বছরের ১৮ আগস্ট সুনীলের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।

মামলায় বাদীপক্ষে আইনি সহায়তা দেন ডিএমসির ওসিসির আইনজীবী ফাহমিদা খাতুন। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, রাষ্ট্রপক্ষ থেকে এ মামলায় ১০ জন সাক্ষীকে হাজির করা হয়।

মন্তব্য পড়ুন 0