দেশে পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুদের ৩৫ শতাংশের উচ্চতা বয়সের তুলনায় কম। এরা খর্বকায়। ২০১০ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত এই চার বছরে দেশে খর্বাকৃতি শিশুর সংখ্যা ১০ শতাংশ কমেছে। ২০১৩ সালে খর্বাকৃতির শিশুর সংখ্যা ছিল প্রায় ৬০ লাখ।
তবে দেশের হাওর এলাকায় সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ৪৫ শতাংশ খর্বাকৃতি এবং ৩৫ শতাংশ শিশু অপুষ্ট। উত্তরাঞ্চলে দেশের সবচেয়ে বেশি শিশু কৃষকায়, ১৩ শতাংশ।
‘বাংলাদেশের খাদ্যনিরাপত্তা ও পুষ্টি পরিস্থিতি প্রতিবেদন-২০১৩’ শীর্ষক প্রতিবেদনে এসব তথ্য দেওয়া হয়েছে। গতকাল শনিবার রাজধানীর ব্র্যাক সেন্টারে জাতীয় খাদ্যনিরাপত্তা ও পুষ্টি পর্যবেক্ষণ প্রকল্প (এফএসএনএসপি) আয়োজিত জাতীয় কর্মশালায় জরিপ প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়।
ইউরোপীয় ইউনিয়নের আর্থিক সহায়তায় বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস), ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের জেমস পি গ্র্যান্ট স্কুল অব পাবলিক হেলথ, আন্তর্জাতিক সংস্থা হেলেন কেলার ইন্টারন্যাশনাল যৌথভাবে জরিপটি পরিচালনা করেছে।
জেমস পি গ্র্যান্ট স্কুল অব পাবলিক হেলথের পরিচালক (পুষ্টি) ডা. জেবা মাহমুদ এবং বিবিএসের প্রকল্প পরিচালক মাসহুদ আলম প্রতিবেদনের সারসংক্ষেপ তুলে ধরেন। দ্বিতীয় পর্বে কারিগরি পর্বে সভাপতিত্ব করেন ব্র্যাকের ভাইস চেয়ারপারসন আহমদ মোশতাক রাজা চৌধুরী।
২০১৩ সালে এফএসএনএসপি ২২ হাজার ৮৯৬টি খানায় এ জরিপ কার্যক্রম পরিচালনা করে। জরিপে ১৯ থেকে ৪৯ বছর বয়সী ১৯ হাজার ১৩ জন নারী এবং ১০ থেকে ১৮ বছর বয়সী ৪ হাজার ২৬৩ জন কিশোরীর সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়। এতে দেখা গেছে, ২০১০ সালে খর্বাকৃতি শিশুর সংখ্যা ছিল ৪৫ শতাংশ। ২০১৩ সালে তা কমে ৩৫ শতাংশ হয়।
খাদ্যনিরাপত্তা সম্পর্কিত কয়েকটি বিষয় জরিপে উঠে এসেছে। যেমন, কোনো বেলা ‘উপোস’ থাকা, পছন্দের খাবার খেতে না পারা ইত্যাদি ২০১১ সালের তুলনায় ২০১৩ সালে অনেকটা কমেছে। ২০১১ সালে জরিপে অংশ নেওয়া মোট খানার প্রায় ৫০ শতাংশ সদস্যের ‘শুধু এক-দুই বেলা ভাত’ খেয়ে থাকার ঘটনা ছিল। ২০১৩ সালে তা ২০ শতাংশে নেমে এসেছে।
সভায় প্রধান অতিথি অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, ‘আমাদের দেশে গড় আয় বেড়েছে, পুষ্টি ক্ষেত্রেও যথেষ্ট উন্নতি হয়েছে। এসব বিষয় আমরা এই জরিপের মাধ্যমে জানতে পারছি।’
বিশেষ অতিথি ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান ও তথ্য বিভাগের সচিব সুরাইয়া বেগম। সম্মানিত অতিথি ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নের ফার্স্ট সেক্রেটারি গঞ্জেলো সিনারো। আরও উপস্থিত ছিলেন হেলেন কেলার ইন্টারন্যাশনালের কান্ট্রি ডিরেক্টর মেরিডিথ জ্যাকসন ডিগ্র্যাফেনরিড।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন