default-image

পুকুরের এ প্রান্ত থেকে ও প্রান্ত। পানির ভেতরে পা ঠেলে খুঁজছেন নিজের ছেলেকে। ১৫ মিনিট পর পায়ে স্পর্শ পান ছোট্ট দেহটার। নিজের হাতে নিথর দেহটি কুড়িয়ে তুললেন বাবা-ই। এরপর দৌড় দিলেন হাসপাতালে। কিন্তু চিকিৎসক বললেন, মারা গেছে।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের শেখেরকিল্লাহ ঘোণা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। মারা যাওয়া শিশুটির নাম আবু নোয়াফ (২)। সে ওই এলাকার বাসিন্দা ও পেকুয়া বাজারের বশর স্টিল মার্টের স্বত্বাধিকারী আবুল বশরের ছেলে।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা গেছে, আজ সকালে পরিবারের সদস্যরা ঘরের ভেতর গল্প করছিলেন। সেখানে আবু নোয়াফও ছিল। এরপর শিশুটি ঘর থেকে বের হয়। এর কিছুক্ষণ পর পরিবারের সদস্যরা তার খোঁজে নামে।

শিশুটির বাবা আবুল বশর বলেন, ‘ঘরের ভেতর ও উঠানে আবু নোয়াফকে দেখতে না পেয়ে পুকুরে ডুবে যেতে পারে এমন ধারণা তৈরি হয়। এরপর পুকুরের একপাশে আমার স্ত্রী অন্যপাশে আমি নেমে খুঁজতে থাকি। ১৫ মিনিট খোঁজার পর ছেলের নিথর দেহ আমার পায়ের সঙ্গে ধাক্কা খায়। এরপর তার মরদেহ তুলে আনি।’

বশর বলেন, ছেলে মারা গেছে এই সত্য মেনে নিতে পারছিলাম না। এ কারণে মরদেহ নিয়ে পেকুয়ার দুটি হাসপাতাল ও চকরিয়ার একটি হাসপাতালে ছোটাছুটি করেছি। শেষমেশ নিথর দেহটা নিয়েই বাড়ি ফিরেছি।

পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুল আজম পুকুরে ডুবে শিশু আবু নোয়াফের মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন