ছয়জন শ্রমিকনেতার ব্যাংক হিসাব তলব করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। আয়কর অধ্যাদেশ, ১৯৮৪-এর ১১৩ (এফ) ধারা অনুযায়ী তাঁদের ব্যাংক হিসাবের বিস্তারিত তথ্য জানতে চাওয়া হয়েছে। এর মধ্যে চারজন শ্রমিকনেতার স্ত্রী বা স্বামীর হিসাবও তলব করেছে এনবিআর।
চলতি মাসের ৫ ও ৮ তারিখে এনবিআর থেকে চিঠি দিয়ে ব্যাংকগুলোর কাছে এসব তথ্য জানতে চাওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে বেশির ভাগ ব্যাংকই এসব হিসাবের বিষয়ে এনবিআরের কাছে তথ্য পাঠিয়েছে বলে একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।
যাঁদের ব্যাংক হিসাবের বিষয়ে তথ্য চাওয়া হয়েছে, তাঁরা হলেন ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কারের সভাপতি ও জাতীয় শ্রমিক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রায় রমেশ চন্দ্র ও তাঁর স্ত্রী কৃষ্ণা রায়, সম্মিলিত গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি নাজমা আক্তার ও তাঁর স্বামী আমিনুল হক, গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য ফোরামের সভাপতি মোশরেফা মিশু, জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি ও ইন্ডাস্ট্রিঅল বাংলাদেশ কাউন্সিলের চেয়ারম্যান আমিরুল হক আমিন ও তাঁর স্ত্রী মাজেদা বেগম, স্বাধীন বাংলা গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শামীমা নাসরিন এবং বাংলাদেশ পোশাকশিল্প শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি তৌহিদুর রহমান। চিঠিতে বলা হয়েছে, এসব নামে কোনো ধরনের বা মেয়াদের হিসাব, সঞ্চয়পত্র, লকার বা ভল্ট সঞ্চয়পত্র থাকলে ২০০৯ সালের ১ জুলাই থেকে হালনাগাদ হিসাব বিবরণী পাঠাতে হবে।
ইউনাইটেড ফেডারেশন অব গার্মেন্টস ওয়ার্কারের সভাপতি রায় রমেশ চন্দ্র গত রাতে প্রথম আলোকে বলেন, ‘বিষয়টি শুনেছি।’ পুরো বিষয়টি না জেনে মন্তব্য করতে চাননি তিনি।
সম্মিলিত গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি নাজমা আক্তার বলেন, গত মাসে আশুলিয়ার শ্রমিকদের আন্দোলনের পর ছাঁটাই, মামলা, আটকসহ বিভিন্নভাবে শ্রমিক ও শ্রমিকনেতাদের হয়রানি করা হচ্ছে। ব্যাংক হিসাব তলব করা তারই অংশ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0