ফরিদপুরে জাটকা বিক্রির দায়ে গতকাল মঙ্গলবার এক মাছ বিক্রেতাকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই দিন শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার উত্তর তারাবুনিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান স্টেশনঘাট এলাকা থেকে ১৫ মণ জাটকা ও ১০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করেছে মৎস্য বিভাগ।
গতকাল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ফরিদপুর শহরের হাজী শরীয়তুল্লাহ বাজারে এ আদালত পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নির্বাহী হাকিম পারভেজ মল্লিক। এ সময় মাছ বিক্রেতা সুশীল চন্দ্র দাসকে (৪২) জাটকা ইলিশ বিক্রির দায়ে এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। আদালত সুশীলের কাছ থেকে চার কেজি জাটকা জব্দ করেন।
তারাবুনিয়া ইউপির চেয়ারম্যান স্টেশনঘাট এলাকায় গতকাল সকালে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা কোস্টগার্ডের সহায়তায় পদ্মা নদীতে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় জেলেরা জাটকা ও জাল ফেলে পালিয়ে যান।
ভেদরগঞ্জ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা জিল্লুর রহমান বলেন, ১ নভেম্বর থেকে ৩০ জুন ২৫ সেন্টিমিটারের (১০ ইঞ্চি) ছোট ইলিশ (জাটকা) শিকার করার ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। সেটি অমান্য করে অনেক জেলে নদীতে জাটকা শিকার করছেন। নিয়মিত অভিযান চালিয়ে তাঁদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। উদ্ধার করা জাটকা স্থানীয় কয়েকটি এতিমখানায় বিতরণ এবং জব্দ করা ১০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন