বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত ডিসেম্বরের শেষ দিকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে শিশুদের বাবা ইমরানের বিরুদ্ধে শিশুদের মা এরিকো বনানী থানায় মামলাটি করেন। এ মামলায় আজ আদালতে উপস্থিত হয়ে আইনজীবীর মাধ্যমে আগাম জামিনের আবেদন জানান ইমরান। আদালতে ইমরানের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী অনীক আর হক। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারওয়ার হোসেন।
পরে আইনজীবী অনীক আর হক প্রথম আলোকে বলেন, ২৩ ডিসেম্বর এরিকোর করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ওই মামলায় হাইকোর্ট ইমরানকে ছয় সপ্তাহের আগাম জামিন দিয়েছেন।

২০০৮ সালের ১১ জুলাই এরিকো ও ইমরানের বিয়ে হয়। তাঁদের তিন মেয়েসন্তান রয়েছে। গত বছরের ১৮ জানুয়ারি এরিকোর সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের আবেদন করেন ইমরান। এরপর ২১ ফেব্রুয়ারি দুই মেয়েকে নিয়ে বাংলাদেশে চলে আসেন তিনি। ছোট মেয়ে জাপানে রয়েছে। তবে ইমরানের কাছ থেকে ১০ ও ১১ বছর বয়সী দুই মেয়েশিশুকে ফিরে পেতে ঢাকায় এসে ১৯ আগস্ট রিট করেন এরিকো। পরে ছোট মেয়েকে ফিরে পেতে আরেকটি রিট করেন ইমরান। এরিকো ও ইমরানের পৃথক রিটের ওপর শুনানি নিয়ে দুই শিশু তাদের বাবা ইমরানের হেফাজতে থাকবে বলে গত ২১ নভেম্বর হাইকোর্ট আদেশ দিয়েছিলেন।

এর বিরুদ্ধে এরিকো আপিল বিভাগে আবেদন করেন। এর শুনানি নিয়ে আপিল বিভাগ আদেশ দেন। আদেশ অনুসারে আপাতত দুই শিশু তাদের মায়ের সঙ্গে থাকছে এবং শিশুদের বাবা নির্ধারিত সময়ে শিশুদের সঙ্গে দেখা করার সুযোগ পাবেন। এ মামলায় ২৩ জানুয়ারি পরবর্তী দিন ধার্য রয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন