এ দেশে জামায়াত-হেফাজতের আন্দোলনের সঙ্গে আল-কায়েদা ও আন্তর্জাতিক জঙ্গিবাদী সংগঠনের সম্পর্ক রয়েছে। আল-কায়েদা নেতা জাওয়াহিরি যে অভ্যুত্থানের ডাক দিয়েছেন, সেটা গত বছরের ৫ মে হেফাজত করতে চেয়েছিল। হেফাজতের সেই অপচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে।
বিমান চলাচল ও পর্যটনমন্ত্রী এবং বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন গতকাল বেলা ১১টায় চট্টগ্রামের নির্মাণাধীন মোটেল পর্যটন সৈকত পরিদর্শনে গেলে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।
মেনন বলেন, জাওয়াহিরির অভ্যুত্থানের ডাকের সঙ্গে জামায়াত-হেফাজতের অপতৎপরতার মিল রয়েছে। এতে এটাই প্রমাণিত হয়েছে, বিএনপি-জামায়াত আর হেফাজত বিদেশিদের নিয়ে এসে বাংলাদেশকে পাকিস্তান-আফগানিস্তান বানাতে চায়।
গতকাল চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসেও সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন রাশেদ খান মেনন। তিনি সেখানে বলেন, জাওয়াহিরির বক্তব্য আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রেরই অংশ। এ ষড়যন্ত্রের সঙ্গে খালেদা জিয়া, জামায়াত আর হেফাজত জড়িত।
এ ছাড়া বিকেল পাঁচটায় মন্ত্রী সীতাকুণ্ডের সরকারি পাটকল হাফিজ জুট মিল ওয়ার্কার্স ইউনিয়ন আয়োজিত সংবর্ধনা সভায় বক্তব্য দেন। তিনি বলেন, ‘আমি জানি, ৫ জানুয়ারি নির্বাচন নিয়ে বিতর্ক আছে। সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা রক্ষা না করলে এখানে আসত সেনাশাসন, অসাংবিধানিক শক্তির শাসন। তার হাত থেকে দেশকে আমরা রক্ষা করেছি। এখন নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন? একটি খারাপ নির্বাচন ভালো, নাকি নির্বাচনের বাইরে গিয়ে একটি অসাংবিধানিক তৃতীয় পক্ষের শক্তি ক্ষমতা দখল করা সেটা ভালো, এ প্রশ্ন আমাদের সবার সামনে।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন