default-image

করোনা সংক্রমণ রোধে চলমান লকডাউন পরিস্থিতিতে জামিন ও সব ধরনের অন্তর্বর্তীকালীন আদেশের কার্যকারিতা আরও দুই সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে।
আজ রোববার হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্ট্রার মো. গোলাম রব্বানী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এ নিয়ে চলতি মাসেই লকডাউনের মধ্যে জামিন ও অন্তর্বর্তীকালীন আদেশের কার্যকারিতা চার সপ্তাহ বাড়ানো হলো।

দেশে করোনা সংক্রমণ ও এতে মৃত্যু বেড়ে যাওয়ায় ৫ এপ্রিল প্রথম দফায় এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন দেওয়া হয়। তার আগের দিন ৪ এপ্রিল সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, যেসব মামলায় আসামিকে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত জামিন দেওয়া হয়েছে বা যেসব মামলায় উচ্চ আদালত থেকে অধস্তন আদালতে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আত্মসমর্পণের শর্তে জামিন দেওয়া হয়েছে বা যেসব মামলায় নির্দিষ্ট সময়ের জন্য অন্তর্বর্তীকালীন আদেশ দেওয়া হয়েছে—সেসব মামলার জামিন এবং সব প্রকার অন্তর্বর্তীকালীন আদেশসমূহের কার্যকারিতা আগামী দুই সপ্তাহ পর্যন্ত বর্ধিত হয়েছে বলে গণ্য হবে।

বিজ্ঞাপন

এর ধারাবাহিকতার কথা উল্লেখ করে আজকের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জামিন ও সব প্রকার অন্তর্বর্তীকালীন আদেশের কার্যকারিতা আগামী দুই সপ্তাহ পর্যন্ত বর্ধিত হয়েছে মর্মে গণ্য হবে।

করোনা সংক্রমণে লাগাম টানতে প্রথম দফায় সাত দিনের জন্য গণপরিবহন চলাচলসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছিল। পরে তা আরও দুই দিন বাড়ানো হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসায় ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত আরও কঠোর বিধিনিষেধ দিয়ে ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ চলছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন