default-image

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় বাউলশিল্পী রীতা দেওয়ানের জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আসসামস জগলুল হোসেন আজ বুধবার এই আদেশ দেন। প্রথম আলোকে এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ট্রাইব্যুনালের বেঞ্চ সহকারী শামীম আল মামুন।

শামীম আল মামুন বলেন, এই মামলায় আজ রীতা দেওয়ান আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। তিনি জামিনের আবেদন জানান। আদালত উভয় পক্ষের শুনানি নিয়ে তাঁর জামিন মঞ্জুর করেন।

আদালতের নথিপত্র থেকে জানা যায়, এই মামলায় গত ২ ডিসেম্বর রীতা দেওয়ানসহ তিনজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। অপর দুই আসামি হলেন শাহজাহান ও ইকবাল হোসেন।

শাহজাহান ও ইকবাল পলাতক।

বিজ্ঞাপন

আদালতের নথি ও মামলার বিবরণ অনুযায়ী, পালাগানের মাধ্যমে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার অভিযোগে গত বছরের ২ ফেব্রুয়ারি বাউলশিল্পী রীতা দেওয়ানসহ তিনজনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে নালিশি মামলা করেন আইনজীবী ইমরুল হাসান।

মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দেন ট্রাইব্যুনালের বিচারক।

তদন্ত শেষে আসামি রীতা দেওয়ানসহ তিনজনের বিরুদ্ধে গত বছরের ৩ নভেম্বর আদালতে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়। প্রতিবেদন জমা দেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পিবিআইয়ের পরিদর্শক শেখ মো. মিজানুর রহমান।

তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, পালাগানের মাধ্যমে আসামি রীতা দেওয়ান ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করেছেন। আর এ-সংক্রান্ত ভিডিও প্রচার করেন আসামি শাহজাহান ও ইকবাল। ইউটিউবে রীতা দেওয়ানের কথা প্রচার করা হয়।

মন্তব্য করুন