হরকাতুল জিহাদ (হুজি) নেতা মুফতি হান্নানসহ তাঁর সহযোগীদের বহনকারী প্রিজন ভ্যানে হামলার ঘটনায় গ্রেপ্তার দুই জঙ্গি আজ রোববার বিকেলে গাজীপুর আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। পরে তাঁদের জেলহাজতে পাঠানো হয়।

ওই দুই আসামি হলেন ময়মনসিংহের তারাকান্দা থানার পূর্ব পাগলি এলাকার মোজাম্মেল হোসেনের ছেলে মোস্তফা কামাল (২২) ও নরসিংদীর মনোহরদী থানার কাটিকাটা উত্তর এলাকার মো. রতন মিয়ার ছেলে মিনহাজুল ইসলাম (২০)।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুরের টঙ্গীতে প্রিজন ভ্যানে হামলার বোমা নিক্ষেপের ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয় মোস্তফা কামাল ও মিনহাজুল ইসলামকে। পরে কয়েক দফা রিমান্ডে নিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। রিমান্ড শেষে আজ রোববার বিকেলে তাঁদের গাজীপুর আদালতে পাঠানো হয়। তাঁদের মধ্যে মোস্তফা কামাল গাজীপুর বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক ইলিয়াস রহমানের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এ ছাড়া মিনহাজুল গাজীপুর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক আবদুল হাইয়ের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। তাঁরা দুজনের প্রিজন ভ্যানে হামলার ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকা এবং আসামিদের ছিনিয়ে নিতেই ওই হামলার ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন।

গাজীপুর আদালতের পরিদর্শক রবিউল ইসলাম জানান, জবানবন্দি শেষে আসামিদের গাজীপুর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

৬ মার্চ সন্ধ্যায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে গাজীপুরের টঙ্গীতে প্রিজন ভ্যানে হামলার হরকাতুল জিহাদের (হুজি) নেতা মুফতি হান্নানসহ তাঁর সহযোগীদের বহনকারী প্রিজন ভ্যানে হামলা ও বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। ঘটনাস্থল থেকে মোস্তফা কামালকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ৭ মার্চ নরসিংদী থেকে মিনহাজুলকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন