default-image

করোনার টিকার মতো স্পর্শকাতর বিষয়ে বিভ্রান্তি না ছড়াতে বিএনপির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী আজ মঙ্গলবার সকালে জাতীয় সংসদ ভবন এলাকায় তাঁর সরকারি বাসভবনে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই আহ্বান জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি নেতারা করোনা ভ্যাকসিনের মতো স্পর্শকাতর ইস্যুতে নানাভাবে মিথ্যাচার করছেন। অহেতুক ভ্যাকসিন নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াবেন না। এটি স্পর্শকাতর বিষয়। জনগণের মাঝে সংশয় তৈরি করা ঠিক হবে না।’

একটা ভালো কাজে বাধা দেওয়া ঠিক নয় বলেও মন্তব্য করেন সড়ক পরিবহনমন্ত্রী। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার সততা ও প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের প্রতিফলন হওয়ায় জনগণ খুশি।

জনগণকে উদ্দেশ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর ওপর আস্থা রাখুন। অপপ্রচার ও সংশয়বাদীদের প্রত্যাখ্যান করুন।’

রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপিকে গঠনমূলক সমালোচনার আহ্বান জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, অতীতের মতো টিকা নিয়েও বিএনপির মিথ্যাচার জনগণ আমলে নেবে না।

বিজ্ঞাপন

ওবায়দুল কাদের বলেন, কাউকে লাভবান বা ব্যবসায়িক স্বার্থে সরকার করোনার টিকা সংগ্রহ করেনি। টিকা সংগ্রহ করা হয়েছে জনগণের স্বার্থে। ব্যবসায়িক স্বার্থে করোনার টিকা আনা হয়েছে—এমন অভিযোগ অমূলক ও ভিত্তিহীন।

সরকার জনগণের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে বড় দুর্নীতি করছে—বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন অভিযোগের জবাবে তাঁকে আয়নায় নিজের চেহারা দেখার পরামর্শ দেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এ দেশে ভোটের নামে প্রহসনের রেকর্ড একমাত্র বিএনপির। ১৫ ফেব্রুয়ারির ভোটারবিহীন প্রহসনের নির্বাচন, মাগুরা ও ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচন বিএনপি ভুলে গেলেও জনগণ এখনো ভোলেনি।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন হওয়ার আগেই বিএনপি কারচুপির যে অভিযোগ করছে, তা কতটুকু সত্য, সেই প্রশ্ন রাখেন সেতুমন্ত্রী। তিনি বলেন, তারা (বিএনপি) অবান্তর অভিযোগ এনে নিজেরাই নিজেদের হেরে যাওয়ার কল্পকাহিনি তৈরি করে। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হবে। জনগণ স্বাধীনভাবে তাঁদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন। সরকার কোনো হস্তক্ষেপ করবে না।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন