ট্রেনের সঙ্গে আটকে ২ কি.মি দূরে গিয়ে পড়ে মাইক্রোবাসটি

বিজ্ঞাপন
default-image

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ট্রেনের ইঞ্জিনের সঙ্গে আটকে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে গিয়ে পড়ে মাইক্রোবাস। এই ঘটনায় বর-কনেসহ নয়জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন তিনজন।

সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উল্লাপাড়া উপজেলার পঞ্চক্রশী ইউনিয়নের সলপ হাটখোলা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন, বর রাজন মণ্ডল (২৫) ও কনে ছুমাইয়া  (২০), বিয়ের যাত্রী সুমন (২০), খোকন (২২), টুটুল (২৫),নুরুন্নাহার (১৫), বায়েজিদ (১৮), শরিফ (২৪),  ভাষা (৬৫), আহাদ (২৫) ও মাইক্রোবাস চালক স্বাধীন (২৭)। নিহত বর রাজন মণ্ডল সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার কালিয়া কান্দাপারা গ্রামের আলতাফ মণ্ডলের ছেলে। 

স্থানীয় সলপ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শওকত হোসেন বলেন, উল্লাপাড়া থেকে সিরাজগঞ্জগামী মাইক্রোবাস উল্লাপাড়ার সলপ হাটখোলা এলাকায় ঢাকা-ঈশ্বরদী রেলপথে অরক্ষিত রেল ক্রসিং পার হওয়ার সময় রাজশাহী থেকে ঢাকাগামী পদ্মা এক্সপ্রেসের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। একই সঙ্গে মাইক্রবাসটি ট্রেনের ইঞ্জিনের সঙ্গে আটকে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে গিয়ে পড়ে। এ সময় ট্রেনের ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই বর-কনেসহ মাইক্রোবাসের ৯ যাত্রীর নিহত হন। এই ঘটনার পর দমকল বাহিনী ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে। নিহত ব্যক্তিরা সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার কালিয়া হরিপুর গ্রাম থেকে একটি মাইক্রোবাসে বরযাত্রী নিয়ে উল্লাপাড়ার চর ঘাটিনা গ্রামে গিয়েছিল। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে কনে নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আরিফুজ্জামান ও উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেওয়ান কওশিক আহমেদ ১১জন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তাঁরা জানান, লাশগুলোর ময়নাতদন্তেরর জন্য সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন