default-image

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে রাজধানীর হাজারীবাগ থানায় করা মামলায় ফটোসাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণ করেছেন আদালত।

আজ বুধবার ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেন এই অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন। অভিযোগ গঠনের শুনানির জন্য আগামী ২২ এপ্রিল তারিখ ধার্য করেছেন ট্রাইব্যুনাল। প্রথম আলোকে এ তথ্য জানিয়েছেন ট্রাইব্যুনালের বেঞ্চ সহকারী শামীম আল মামুন।

বিজ্ঞাপন

আদালত সূত্র জানায়, শফিকুলের বিরুদ্ধে হাজারীবাগ থানায় করা মামলায় জানুয়ারি মাসে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ।

একই আইনে শফিকুলের বিরুদ্ধে রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর থানায় করা মামলার অভিযোগপত্র চলতি মাসে দাখিল করে পুলিশ।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে শফিকুলের বিরুদ্ধে রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানায় আরেকটি মামলা রয়েছে।

পৃথক মামলায় গত বছরের ৩ মে থেকে কারাগারে ছিলেন শফিকুল। গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর জামিনে মুক্তি পান তিনি।

শফিকুল ঢাকা থেকে গত বছরের ১০ মার্চ নিখোঁজ হওয়ার পর তাঁর ছেলে মনোরম পলক অপহরণের অভিযোগে মামলা করেছিলেন।

৫৩ দিন পর যশোরের বেনাপোল সীমান্ত থেকে শফিকুলকে গ্রেপ্তারের কথা জানায় বিজিবি। তখন তাঁর বিরুদ্ধে ভারত থেকে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের অভিযোগে বেনাপোল বন্দর থানায় মামলা করা হয়। পরে ঢাকায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের একাধিক মামলায় শফিকুলকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

শফিকুল নিখোঁজ হওয়ার এক দিন আগে ৯ মার্চ তিনিসহ ৩২ জনের বিরুদ্ধে শেরেবাংলা নগর থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন আওয়ামী লীগের সাংসদ সাইফুজ্জামান শিখর। একই আইনে পরে কামরাঙ্গীরচর ও হাজারীবাগ থানায় যুব মহিলা লীগের দুই নেত্রী দুটি মামলা করেন।

দৈনিক পক্ষকাল পত্রিকার সম্পাদক শফিকুলের বিরুদ্ধে একের পর এক মামলার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল আন্তর্জাতিক মানবাধিকারবিষয়ক সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন