স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশের তালিকায় উন্নীত করার জাতিসংঘের চূড়ান্ত সুপারিশের প্রেক্ষাপটে জাতির উদ্দেশে আজ শনিবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাঁর পাশে ছিলেন ছোট বোন শেখ রেহানা
স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশের তালিকায় উন্নীত করার জাতিসংঘের চূড়ান্ত সুপারিশের প্রেক্ষাপটে জাতির উদ্দেশে আজ শনিবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাঁর পাশে ছিলেন ছোট বোন শেখ রেহানাছবি: পিআইডি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ যখন গড়ে তুলেছি, তখন ডিজিটাল নিরাপত্তা দেওয়া আমাদের দায়িত্ব।’

স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশের তালিকায় উন্নীত করার জাতিসংঘের চূড়ান্ত সুপারিশের প্রেক্ষাপটে জাতির উদ্দেশে আজ শনিবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এই মন্তব্য করেন। এ সময় তাঁর পাশে বসা ছিলেন তাঁর বোন শেখ রেহানা। আজ শনিবার বিকেল চারটায় এ অনুষ্ঠান হয়। বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেল এই ভাষণ ও প্রশ্নোত্তর পর্ব সরাসরি সম্প্রচার করে।

বিজ্ঞাপন

আজ প্রশ্নোত্তর পর্বে প্রধানমন্ত্রীকে এক সাংবাদিক প্রশ্ন করেন, বাংলাদেশের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের কারণে সাংবাদিকদের হয়রানি নিয়ে সরকার যে সমালোচিত, সেটা নিয়ে আপনার মন্তব্য কী?

এর জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা দেওয়ার দায়িত্বটা আমাদের পালন করতে হবে, কারণ এই ডিজিটাল পদ্ধতির মধ্য দিয়ে আমাদের দেশের ছোট্ট শিশু থেকে শুরু করে কেউ যেন বিপথে যেতে না পারে। কোনোরকম অসামাজিক কার্যকলাপ বা জঙ্গিবাদ বা অন্য কোনো ধরনের কাজের সঙ্গে জড়িত হতে না পারে, সে জন্য ডিজিটাল নিরাপত্তা দেওয়া একান্তভাবে কর্তব্য। যাতে করে এমন কোনো কাজ করতে না পারে, যা দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য ক্ষতির কারণ হতে পারে।’

default-image

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, কারও মৃত্যু কাম্য নয়, কিন্তু সেটাকে কেন্দ্র করে অশান্তি সৃষ্টি করা, সেটাও কাম্য নয়। কেউ অসুস্থ হয়ে মারা গেলে কী করার আছে!

জেলখানায় চার জাতীয় নেতা হত্যার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সে রকম কোনো ঘটনা তো ঘটেনি এখনো। যারা সে হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছিল, তাদের সঙ্গেও গাঁটছড়া বাঁধতে দেখা গেছে।

কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল-জাজিরা চ্যানেলে প্রচারিত তথ্যচিত্র সম্পর্কে একজন সাংবাদিকের প্রশ্নের উত্তরে প্রধানমন্ত্রী সরাসরি কোনো মন্তব্য না করে বলেছেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা যারা চায়নি, যারা জাতির পিতাকে হত্যা করেছে, আমাকে যারা হত্যা করতে চেয়েছে, যারা এই দেশটাকে অস্ত্র চোরাকারবারি, দুর্নীতির আখড়ায় পরিণত করে নিজেদের ভাগ্য গড়তে ব্যস্ত ছিল, তারা বাংলাদেশের উন্নতি মানবে কিভাবে? তাদের তো চেষ্টা থাকবেই দেশের বদনাম করার।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘এ নিয়ে আমাদের চিন্তার কিছু নেই। কোন চ্যানেল কি বললো, সেটা আমার রাজনীতি না। আমার রাজনীতি মানুষের জন্য কাজ করা।’

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন