বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের জনসংযোগ বিভাগের উপমহাব্যবস্থাপক তাহেরা খন্দকারের পক্ষ থেকে পাঠানো ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, থাইল্যান্ড কর্তৃপক্ষ কর্তৃক স্বীকৃত কোভিড-১৯–এর ‍টিকার পূর্ণ ডোজ নেওয়ায় কমপক্ষে ১৪ দিন পর থেকে ব্যাংকক যাওয়া যাবে। তবে থাইল্যান্ড যেতে ওয়েব পাস নিতে হবে।

এই(https://tp.consular.go.th/) ঠিকানায় নিবন্ধনের মাধ্যমে ‘থাইল্যান্ড পাস’ নিতে হবে। যাত্রীদের ফ্লাইট ছাড়ার আগের সর্বোচ্চ ৭২ ঘণ্টার মধ্যে করোনা পরীক্ষা করাতে হবে এবং নেগেটিভ সনদ থাকতে হবে। দেশটিতে পৌঁছানোর পর আবারও করোনা পরীক্ষা করাতে হবে। থাইল্যান্ড পৌঁছানোর পর করোনা পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ হলে নির্ধারিত পর্যটনকেন্দ্রগুলোতে ঘুরে বেড়াতে পারবেন।

বিমান জানিয়েছে, থাইল্যান্ড গিয়ে যাত্রীদের হোটেল কোয়ারেন্টিনে থাকার প্রয়োজন নেই, তবে তাদের সাত দিন থাইল্যান্ড কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নির্ধারিত ‘স্যান্ডবক্স প্রোগ্রাম’–এর আওতায় স্যান্ডবক্স এলাকার (নির্ধারিত পর্যটনকেন্দ্রগুলোর) মধ্যে থাকতে হবে। যাত্রীদের স্যান্ডবক্স এলাকায় থাইল্যান্ড পর্যটন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক স্বীকৃত নির্ধারিত হোটেলে সাত দিনের রিজার্ভেশন (স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ছয়টার পর পৌঁছালে আট দিনের রিজার্ভেশন) করাতে হবে। থাইল্যান্ড ভ্রমণের জন্য যাত্রীদের ৫০ হাজার মার্কিন ডলারের ইনস্যুরেন্স কাভারেজ থাকতে হবে।

বিমান জানিয়েছে, যাত্রীরা বিমানের যেকোনো সেলস অফিস, বলাকার প্রধান কার্যালয়ের সেলস সেন্টার (২৪/৭): মুঠোফোন নম্বর: ০১৭৭৭৭১৫৬৩০-৩১, ফোন: +৮৮-০২-৮৯০১৬০০ এক্সটেনশন ২১৩৫/২১৩৬, বিমান কল সেন্টার ০১৯৯০৯৯৭৯৯৭ এবং অনুমোদিত ট্রাভেল এজেন্সির মাধ্যমে টিকেট ক্রয় করতে পারবেন।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন