তরুণদের উদ্ভাবনী চিন্তাকে বাস্তবে রূপ দেওয়ার লক্ষ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গঠিত হলো উদ্ভাবন ও পরিচর্যা পরীক্ষাগার (ইনোভেশন অ্যান্ড ইনকিউবেশন ল্যাব)। এখানে শিক্ষার্থীরা বিজ্ঞান, তথ্যপ্রযুক্তি, ব্যবসায় ও সামাজিক সমস্যা নিয়ে তাঁদের উদ্ভাবনী চিন্তা বিনিময় করতে পারবেন। সরকার, শিল্প–কারখানা, উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বেসরকারি উন্নয়ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যমে এই ইনোভেশন ল্যাব (আই-ল্যাব) তরুণদের এই চিন্তাকে বাস্তবে রূপ দেওয়ার চেষ্টা করবে।

আজ শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের দপ্তর–সংলগ্ন পুরোনো সিনেট কক্ষে সংবাদ সম্মেলন করে আই-ল্যাবের উদ্বোধন করা হয়। এখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, কর্মচারী—সবাই যাঁর যাঁর অবস্থান থেকে তাঁদের উদ্ভাবিত প্রক্রিয়া ও সামাজিক ধারণা এই পরীক্ষাগারে জমা দিতে পারবেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, সামাজিক সমস্যাগুলো মোকাবিলা ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য নতুন কিছু উদ্ভাবন দরকার। শিক্ষার্থী ও তরুণেরা অনেকেই বিভিন্ন চিন্তা করেন, কিন্তু সেটা উপস্থাপন করার কোনো জায়গা পান না। তাঁদের প্রণোদনা ও উৎসাহ দিতেই এই পরীক্ষাগার। এর মাধ্যমে শুধু বিজ্ঞান শিক্ষার্থীরাই নয়, অন্য শিক্ষার্থীরাও যেকোনো বিষয়ে তাঁদের চিন্তা বিনিময় করার সুযোগ পাবেন।

আই–ল্যাবের পরিচালক বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক ব্যবসায় বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. রাশেদুর রহমান বলেন, প্রতি মাসে বিভিন্ন কর্মসূচি, বার্ষিক উৎসব, সচেতনতামূলক কর্মসূচি, কর্মশালা, উদ্যোক্তা সম্মেলন, শিক্ষার্থীদের নিয়ে শিল্পপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শন, আন্তর্জাতিক সম্মেলন, ম্যাগাজিন প্রকাশের মাধ্যমে এই পরীক্ষাগার সামনের দিকে এগিয়ে যাবে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন