কিশোরগঞ্জের তাড়াইল উপজেলায় প্রধান শিক্ষক আজিজুর রহমান ভূঞাকে মারধরের প্রতিবাদ ও দায়ী ছাত্রলীগ নেতার বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে স্মারকলিপি দিয়েছেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা। গতকাল সোমবার দুপুরে উপজেলা সদরে এ কর্মসূচি পালন করেন তাঁরা।
উপজেলার ধলা ইউনিয়নের উত্তর ধলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজিজুর রহমানকে গত শনিবার সকালে বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের কক্ষে ঢুকে উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক চেঙ্গিস চৌধুরী কিল-ঘুষি মারেন এবং তাঁকে প্রাণনাশের হুমকি দেন। ওই বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের দাতা সদস্য অনুমোদনকে কেন্দ্র করে প্রধান শিক্ষককে মারধর করেন ছাত্রলীগের ওই নেতা। পরদিন রোববার প্রধান শিক্ষক চেঙ্গিসকে আসামি করে তাড়াইল থানায় মামলা করেন।
উপজেলা সদরের বিক্ষোভ মিছিলে গতকাল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তিন শতাধিক শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া চেঙ্গিসকে গ্রেপ্তার ও তাঁর বিচারের দাবিতে আগামী ৩ জানুয়ারি উপজেলার সবগুলো বিদ্যালয়ে দুই ঘণ্টার কর্মবিরতি ও ৫ জানুয়ারি উপজেলা সদরে অবস্থান কর্মসূচির ঘোষণা দেন শিক্ষক নেতারা।
আজিজুর রহমান বলেন, ‘চেঙ্গিস চৌধুরী অবৈধভাবে কমিটিতে দাতা সদস্য হিসেবে ঢোকার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। পরে বিদ্যালয়ে এসে আমাকে মারপিট করে প্রাণনাশের হুমকি দেন।’
উপজেলা শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাজাহারুল ইসলাম বলেন, ‘চেঙ্গিস গ্রেপ্তার না হওয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাব।’
মুঠোফোনে চেঙ্গিস চৌধুরী বলেন, ‘প্রধান শিক্ষককে মারপিট করিনি। একটু ঠেলা-ধাক্কা হয়েছে। প্রধান শিক্ষক কৌশলে আমাকে বিদ্যালয়ের দাতা সদস্যপদ থেকে বাদ দিয়েছেন।’
তাড়াইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, থানায় মামলা হয়েছে। আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।
ইউএনও রাবেয়া আকতার বলেন, ‘স্মারকলিপি পেয়েছি। ছাত্রলীগ নেতা যা করেছেন, তা অমার্জনীয় অপরাধ।’

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন