বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে আরও ছয়টি জেলায় মামলা হয়েছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ, গাইবান্ধা, সিরাজগঞ্জ, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট ও ময়মনসিংহে গতকাল রোববার এসব মামলা হয়েছে। এর মধ্যে তিনটি মামলায় তারেকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ও দুটিতে সমন জারি করা হয়েছে।
১৫ ডিসেম্বর লন্ডনে বিএনপি আয়োজিত বিজয় দিবসের আলোচনা অনুষ্ঠানে তারেক রহমান বঙ্গবন্ধুকে ‘রাজাকার ও পাকবন্ধু’ বলেন।
চাঁপাইনবাবগঞ্জে তারেক রহমান ও বিএনপির আরও তিন নেতার বিরুদ্ধে আমলি আদালত ‘ক’ অঞ্চলে মামলা করেছেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ফায়জার রহমান। মামলাটি আমলে নিয়ে জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম (দায়িত্বপ্রাপ্ত) নূর নবী ৪ ফেব্রুয়ারি আসামিদের আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করেন।
সাতক্ষীরায় জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিমের আদালতে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এস এম মারুফ তানভীর হোসাইন। আদালতের বিচারক নূরুল ইসলাম মামলা আমলে নিয়ে তারেকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।
সিরাজগঞ্জের আমলি আদালতে মামলা করেছেন কাজীপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আলী আসলাম। শুনানি শেষে আদালতের জ্যেষ্ঠ বিচারক রুবিনা পারভীন সমন জারির আদেশ দেন।
বাগেরহাটের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মো. নূরুজ্জামানের আদালতে জেলা তাঁতি লীগের সভাপতি তালুকদার আবদুল বাকির দায়ের করা একটি মামলায় তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।
ময়মনসিংহে দায়ের করা মামলায় তারেকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিমের আদালত। বিচারিক আদালতে (এক নম্বর) মামলাটি করেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মোর্শেদুজ্জামান খান।
আর গাইবান্ধা জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিমের আদালতে মামলা করেছেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তাহমিদুর রহমান।
(প্রতিবেদন তৈরিতে সহযোগিতা করেছেন নিজস্ব প্রতিবেদক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও সাতক্ষীরা, সিরাজগঞ্জ ও বাগেরহাট প্রতিনিধি এবং ময়মনসিংহ অফিস)

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন