default-image

রাজধানীতে যমুনা ব্যাংকের কর্মকর্তা আরিফুন্নেসা খুনের তদন্তে কোনো অগ্রগতি নেই। এজাহারভুক্ত একমাত্র আসামি ফখরুল ইসলাম ওরফে রবিন গতকাল রোববার পর্যন্ত ছিলেন পুলিশের ধরা-ছোঁয়ার বাইরে।
আরিফার বড় ভাই আবদুল্লাহ আল আমিন প্রথম আলোকে বলেন, ‘পজিটিভ কিছু শুনিনি। পুলিশ চেষ্টা করছে বলে আমাদের জানিয়েছে।’
এর আগে গত শনিবার পুলিশের তদন্তকারী দল জামালপুরের সকালের বাজার এলাকায় ফখরুল ইসলামের পৈতৃক বাড়িতে ও ওই শহরে তাঁর আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে অভিযান চালায়। তবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁদের কাউকেই পাওয়া যায়নি। বাড়িঘর ছিল ফাঁকা।
কলাবাগান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সমীর চন্দ্র সূত্রধর ব্যাংকার আরিফা খুনের ঘটনা খতিয়ে দেখছেন। উল্লেখ করার মতো কোনো অগ্রগতি নেই বলে গতকাল রাতে প্রথম আলোকে তিনি জানান। সমীর চন্দ্র আরও বলেন, ফখরুল ইসলামকে ধরলে হত্যার কারণ সম্পর্কে জানা যাবে। কিন্তু তাঁকে ধরাই সম্ভব হচ্ছে না।
১৬ মার্চ রাজধানীর সেন্ট্রাল রোডে ১৩ ওয়েস্টয়েন্ড নামক আবাসিক ভবনে নিজ বাসার সামনে খুন হন আরিফুন্নেসা আরিফা।
যমুনা ব্যাংকের কর্মকর্তা আরিফুন্নেসার সঙ্গে ফখরুল ইসলামের ছাড়াছাড়ি হয়ে গিয়েছিল। আরিফা তাঁর সাবেক স্বামীর বিরুদ্ধে উত্ত্যক্ত করার অভিযোগ করে আসছিলেন।
জামালপুরের মেয়ে আরিফা ইডেন কলেজে পড়ার সময় একই এলাকার বাসিন্দা ফখরুল ইসলামকে বিয়ে করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন