default-image

ভারতের সঙ্গে তিস্তার পানিবণ্টন চুক্তির বিষয়ে আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়েছেন নতুন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। মঙ্গলবার সিলেটে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

এ কে আব্দুল মোমেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে প্রথম বিদেশ সফরে ভারত যাবেন। সেই সফরে তিস্তার পানিবণ্টন চুক্তি নিয়ে আলোচনা হবে কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘কোনো কিছুতেই ম্যাজিক নেই। সেটা নিয়ে অনেক দূর আলোচনা হয়েছে। আলোচনা চালিয়ে যাব। আমার প্রথম ভারত সফর হবে সৌজন্য সাক্ষাৎ। তারপরও আমরা বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আলোচনা করব।’

ভারত সফরের বিষয়ে আব্দুল মোমেন আরও বলেন, ‘ভারত আমাদের বন্ধুরাষ্ট্র। তাদের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক উষ্ণ। এবারের নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি প্রথম আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে ফোন দিয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীও আমাকে তাঁদের দেশে সফর করার দাওয়াত দিয়েছেন।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে ঢাকা থেকে মঙ্গলবার বেলা দেড়টায় সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান। বিমানবন্দরের ভেতরে তাঁকে অভ্যর্থনা জানান সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা। পরে তিনি বিমানবন্দর থেকে মোটর শোভাযাত্রাসহ হজরত শাহজালাল (রহ.)-এর মাজার জিয়ারত করতে যান। মাজার জিয়ারত শেষে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি। এ সময় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহউদ্দিন সিরাজ, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদরউদ্দিন আহমদ কামরান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগরের সাধারণ সম্পাদক আসাদউদ্দিন আহমদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিকেল চারটায় সিলেটের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন সিলেট চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির উদ্যোগে পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। সিলেট চেম্বার ভবনের তৃতীয় তলার সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত এই সংবর্ধনায় সভাপতিত্ব করেন সিলেট চেম্বারের সভাপতি খন্দকার শিপার আহমদ। অনুষ্ঠানে সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী; কাস্টম, এক্সাইজ অ্যান্ড ভ্যাট কমিশনারেট সিলেটের কমিশনার গোলাম মো. মুনীর, কর কমিশনার আবুল হান্নান দেলোয়ার হোসেন, সিলেট চেম্বারের নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যান বিজিত চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্য দেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0