default-image

দখল ও দূষণের হাত থেকে মেঘনা নদীকে রক্ষার জন্য মহাপরিকল্পনা করতে একটি চুক্তি সই হয়েছে। আজ শনিবার সকালে রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে এ চুক্তি সই অনুষ্ঠান হয়। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের পক্ষে এই চুক্তি সইয়ে মূল সমন্বয়কারী ছিল ঢাকা ওয়াসা।

ইনস্টিটিউট অব ওয়াটার মডেলিং (আইডব্লিউএম) ও সেন্টার ফর এনভায়রনমেন্টাল অ্যান্ড জিওগ্রাফিক ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (সিইজিআইএস) সঙ্গে এই চুক্তি হয়েছে। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছেন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. খাইরুল ইসলাম।

বুড়িগঙ্গা ও শীতলক্ষ্যার পানি এতই দূষিত যে তা শোধন করা যাচ্ছে না। এ জন্য যেতে হচ্ছে পদ্মা ও মেঘনা নদীতে। বুড়িগঙ্গা ও শীতলক্ষ্যার দূষণ রোধে কর্মপরিকল্পনা তৈরি হয়েছে। সে অনুযায়ী কাজও চলছে। মেঘনার অবস্থা যাতে বুড়িগঙ্গার মতো না হয়, সে জন্যই এই চুক্তি।
ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খান

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার, পল্লি উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, নদীকে দূষণমুক্ত রাখতে ও নাব্যতা ফিরিয়ে আনতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁকে দায়িত্ব দিয়েছেন। ইতিমধ্যে বুড়িগঙ্গা, বালু, ধলেশ্বরীসহ ছয়টি নদীর মহাপরিকল্পনা তৈরি করা হয়েছে। মেঘনা নিয়ে চুক্তির বিষয়ে তিনি বলেন, এ নদী থেকে পানি শোধন করে ঢাকায় সরবরাহ করে ঢাকা ওয়াসা। পানি শোধনে দুটি শোধনাগার নির্মাণ করা হচ্ছে। এসব শোধনাগারে যাঁরা অর্থায়ন করেছেন, তাঁরা মেঘনার দূষণ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

বিজ্ঞাপন

নিজেও নদীর দূষণ নিয়ে সমানভাবে উদ্বিগ্ন উল্লেখ করে মন্ত্রী আরও বলেন, মেঘনার দখল-দূষণ যাতে রোধ করা যায়, সে জন্যই মহাপরিকল্পনা করতে আইডব্লিউএম ও সিইজিআইএসের সঙ্গে চুক্তি হচ্ছে। মহাপরিকল্পনা তৈরির পর সে অনুয়ায়ী সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় প্রয়োজনীয় কাজ করবে।

অনুষ্ঠানে ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খান বলেন, ঢাকা শহরের চারপাশে মালার মতো চারটি নদী। এত সুন্দর শহর পৃথিবীতে কমই আছে। কিন্তু আমাদের দুর্ভাগ্য, নদীগুলো খুবই দূষিত। এই দূষণের কারণে সবচেয়ে বেশি ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে ওয়াসাকে। তিনি বলেন, বুড়িগঙ্গা ও শীতলক্ষ্যার পানি এতই দূষিত যে তা শোধন করা যাচ্ছে না। এ জন্য যেতে হচ্ছে পদ্মা ও মেঘনা নদীতে। বুড়িগঙ্গা ও শীতলক্ষ্যার দূষণ রোধে কর্মপরিকল্পনা তৈরি হয়েছে। সে অনুযায়ী কাজও চলছে। মেঘনার অবস্থা যাতে বুড়িগঙ্গার মতো না হয়, সে জন্যই এই চুক্তি বলে জানান তিনি।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে সিইজিআইএসের নির্বাহী পরিচালক মালিক ফিদা এ খান, আইডব্লিউএমের নির্বাহী পরিচালক আবু সালেহ খানসহ বিভিন্ন দাতা সংস্থার প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন