দণ্ডিত বাসচালকের মৃত্যু, বাতিল হবে আপিল

বিজ্ঞাপন
default-image

৯ বছর আগে সড়ক দুর্ঘটনায় চলচ্চিত্র নির্মাতা তারেক মাসুদ ও এটিএন নিউজের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মিশুক মুনীরসহ পাঁচজনের প্রাণহানির ঘটনায় করা মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত একমাত্র আসামি চলতি মাসে মারা যান। এই প্রেক্ষাপটে ওই দণ্ডাদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে চালকের করা আপিলটি এখন আইনি প্রক্রিয়ায় বাতিল হয়ে যাবে—এমনটিই বলছেন ফৌজদারি আইন বিশেষজ্ঞরা।

তবে নিহত দুই পরিবারের পক্ষ থেকে মোটরযান অধ্যাদেশ অনুসারে ক্ষতিপূরণ চেয়ে করা পৃথক দুটি মামলার মধ্যে তারেক মাসুদের পরিবারের করা মামলায় হাইকোর্ট ক্ষতিপূরণ দিতে রায় দিয়েছেন। এই রায়ের পর বাসমালিকপক্ষ ও বাদীপক্ষ পৃথক আপিল করেছে, যা আপিল বিভাগে শুনানির অপেক্ষায়। অন্যদিকে মিশুক মুনীরের পরিবারের পক্ষ থেকে করা ক্ষতিপূরণ মামলাটি হাইকোর্টে সাক্ষ্য গ্রহণ পর্যায়ে রয়েছে।

৯ বছর আগে ২০১১ সালের ১৩ আগস্ট মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলার জোকা এলাকায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীর। তাঁদের বহনকারী মাইক্রোবাসটির সঙ্গে চুয়াডাঙ্গাগামী একটি বাসের সংঘর্ষ হয়। এতে তাঁরা দুজনসহ মাইক্রোবাসের পাঁচ আরোহী নিহত হন। এ ঘটনায় ২০১১ সালে পুলিশ বাদী হয়ে ঘিওর থানায় মামলা করে। বেপরোয়া গতিতে বাস চালিয়ে পাঁচজনের মৃত্যুর ঘটনায় ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে এক রায়ে মানিকগঞ্জের অতিরিক্ত দায়রা জজ চুয়াডাঙ্গার ডিলাক্স পরিবহনের বাসচালক জামির হোসেনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও জরিমানা দেন। কারাবন্দী এই বাসচালক চিকিৎসাধীন অবস্থায় চলতি ১ আগস্ট মারা যান।

ফৌজদারি আইন বিশেষজ্ঞ এস এম শাহজাহান প্রথম আলোকে বলেন, আসামি মারা যাওয়ায় ফৌজদারি কার্যবিধির ৪৩১ ধারা অনুসারে তাঁর আপিলটি এখন বাতিল হয়ে যাবে। তবে জরিমানা থাকলে সে ক্ষেত্রে জরিমানার বিষয়ে আপিল চলতে পারে। কেননা, জরিমানা মৃত দণ্ডিত আসামির রেখে যাওয়া সম্পত্তি থেকে আদায়যোগ্য। জরিমানার বিষয়ে সাধারণত আপিল লড়ার সংখ্যা খুবই কম। দণ্ড ছাড়া শুধু জরিমানা হলে সে ক্ষেত্রে আপিল চলবে।

আদালত সূত্রের তথ্য, ওই দুর্ঘটনার পর ২০১২ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীরের পরিবারের মানিকগঞ্জ জেলা জজ আদালতে মোটরযান অধ্যাদেশ অনুযায়ী বাসমালিক, চালক এবং ইনস্যুরেন্স কোম্পানির বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণ চেয়ে পৃথক মামলা করেন। বাদীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে পরবর্তী সময়ে মামলা দুটি হাইকোর্টে বদলি হয়।

এই দুটি মামলার সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে দুই পরিবারের অন্যতম আইনজীবী রমজান আলী শিকদার গত সোমবার প্রথম আলোকে বলেন, তারেক মাসুদের পরিবারের ক্ষতিপূরণ মামলায় হাইকোর্ট যে রায় দিয়েছেন, তার বিরুদ্ধে বাসমালিকপক্ষ এবং বাদীপক্ষের করা পৃথক আপিল এখন আপিল বিভাগে শুনানি শুরুর অপেক্ষায়। মিশুক মুনীরের পরিবারের করা ক্ষতিপূরণ মামলাটি বিচারপতি জে বি এম হাসানের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চে বিবাদীপক্ষের সাক্ষ্য গ্রহণ পর্যায়ে আছে। 

বাসচালকের আইনজীবী আবদুস সোবহান তরফদার প্রথম আলোকে বলেন, ‘যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের রায়ের বিরুদ্ধে জমির হোসেন হাইকোর্টে আপিল করেন। হাইকোর্ট আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করে জরিমানার আদেশ স্থগিত করেন। তবে পেপারবুক প্রস্তুত না হওয়ায় আপিলের শুনানি হয়নি। ১ আগস্ট বাসচালক মারা যান শুনেছি। করোনো পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে বিষয়টি আদালতে উপস্থাপন করা হবে। আপিল না চালানোর কথা বলা হবে। কেননা, আসামি মারা গেছেন। ফলে আপিলটি বাতিল হয়ে যাবে।’

ওই দুর্ঘটনার পর তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীরের পরিবার মানিকগঞ্জ জেলা জজ আদালতে মোটরযান অধ্যাদেশ অনুযায়ী বাসমালিক, চালক ও ইনস্যুরেন্স কোম্পানির বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণ চেয়ে পৃথক দুটি মামলা করেছিল। পরে সংবিধানের ১১০ অনুচ্ছেদ অনুসারে মামলা দুটি বাদীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নিম্ন আদালত থেকে হাইকোর্টে বদলি হয়। এই মামলা শুনানি ও নিষ্পত্তির জন্য হাইকোর্টের বেঞ্চ নির্ধারণ করে দেন প্রধান বিচারপতি। হাইকোর্ট শুনানি শেষে তারেক মাসুদের পরিবারের করা ক্ষতিপূরণ মামলায় ২০১৭ সালের ৩ ডিসেম্বর রায় দেন। রায়ে তারেক মাসুদের পরিবারকে ৪ কোটি ৬১ লাখ ৭৫ হাজার ৪৫২ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে বলা হয়।

রায়ে বলা হয়, ওই অর্থের মধ্যে বাসের দুই অপারেটর ও এক মালিক যৌথভাবে ৪ কোটি ৩০ লাখ ৯৫ হাজার ৪৫২ টাকা দেবেন। রিলায়েন্স ইনস্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড দেবে ৮০ হাজার টাকা। আর বাস (চুয়াডাঙ্গা ডিলাক্স) চালক দেবেন ৩০ লাখ টাকা। মোট অর্থের মধ্যে ১০ লাখ টাকা তারেকের মা নুরুন নাহার এবং বাকি অর্থ তারেকের স্ত্রী ও ছেলেকে দিতে বলা হয়েছে। বিবাদীপক্ষকে ছয় মাসের মধ্যে ওই অর্থ পরিশোধ করতে বলা হয়।

বাসচালকের মৃত্যু ও ক্ষতিপূরণ আদায় বিষয়ে আইনজীবী রমজান আলী শিকদার প্রথম আলোকে বলেন, ক্ষতিপূরণ চেয়ে করা দেওয়ানি মামলার পরিপ্রেক্ষিতে ক্ষতিপূরণ দিতে যার ওপর ডিক্রি হয়, তাকে ওই অর্থ পরিশোধ করতে হয়। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি মারা গেলেও তার আইনগত উত্তরাধিকার থেকে ওই অর্থ আদায় করা যায়। 

আমাদের প্রতিনিধি, ফরিদপুর জানিয়েছেন, তারেক মাসুদ ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক ও আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে তারেক মাসুদের সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন