‘সাতক্ষীরায় যৌথ বাহিনীর অপারেশনে ভারতীয় বাহিনীর সহায়তা’ শীর্ষক সংবাদ প্রকাশের জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছে দৈনিক ইনকিলাব। পত্রিকাটির ওয়েবসাইটে এ-সংক্রান্ত ‘আমরা দুঃখিত’ শিরোনামে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘গত ১৬ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার) দৈনিক ইনকিলাবের প্রথম পৃষ্ঠায় “সাতক্ষীরায় যৌথ বাহিনীর অপারেশনে ভারতীয় বাহিনীর সহায়তা” শীর্ষক সংবাদটি প্রকাশিত হওয়ায় আমরা দুঃখিত। এ ব্যাপারে সম্পাদকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এ ধরনের স্পর্শকাতর বিষয়ে সংবাদ প্রকাশের ক্ষেত্রে আরও সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন, যাতে এ ধরনের ঘটনার আর পুনরাবৃত্তি না ঘটে।’

সাতক্ষীরায় যৌথ বাহিনীর অভিযানে ভারতীয় সেনাবাহিনী সহায়তা করছে বলে প্রতিবেদন প্রকাশের পর গত বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর আর কে মিশন রোডে ইনকিলাব কার্যালয়ে তল্লাশি চালায় পুলিশ। পত্রিকাটির ছাপাখানা, কম্পিউটার কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। বার্তা সম্পাদকসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওয়ারী থানায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে পুলিশ মামলা করে।

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু গতকাল বলেছেন, বিভ্রান্তিকর সংবাদ প্রকাশের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় ইনকিলাবের ছাপাখানা বন্ধ করা হয়েছে। মামলার রায় ইনকিলাবের পক্ষে গেলে ছাপাখানা খুলে দেওয়ার ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঢাকা মহানগর পুলিশ জানায়, ‘সাতক্ষীরায় যৌথ বাহিনীর অপারেশনে ভারতীয় বাহিনীর সহায়তা’ শিরোনামে ১৬ জানুয়ারি ইনকিলাব পত্রিকা এবং তাদের ওয়েবসাইটে একটি বানোয়াট খবর প্রকাশিত হয়। এ ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি আইন ও সংযুক্ত দণ্ডবিধি অনুসারে রাজধানীর ওয়ারী থানায় এসআই মো. জাহাঙ্গীর আলম মামলা করেন। এতে ইনকিলাব সম্পাদক, প্রকাশক, প্রধান বার্তা সম্পাদক ও এক প্রতিবেদককে আসামি করা হয়। মামলার পর আদালত থেকে তল্লাশি পরোয়ানা নিয়ে পুলিশ ইনকিলাব ভবনে অভিযান চালায়।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন