বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে আনন্দ শিপইয়ার্ডের প্রায় ১ হাজার ৩০০ কোটি টাকা ঋণ জালিয়াতির ঘটনা অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে দুটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ (এমডি) পাঁচজনকে তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।
আজ মঙ্গলবার দুদকের উপপরিচালক মীর জয়নুল আবেদীন শিবলী তাঁদের তলব করে নোটিশ পাঠিয়েছেন। নোটিশে তাঁদের ১৭ ও ১৮ ফেব্রুয়ারি বিভিন্ন সময়ে দুদকের প্রধান কার্যালয়ে হাজির হতে বলা হয়েছে।
ফারইস্ট ফিন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের এমডি শান্তনু সাহা, ন্যাশনাল হাউজিং ফিন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্টের ভাইস প্রেসিডেন্ট কামাল পাশা এবং আইডিএলসি ফিন্যান্স লিমিটেডের হেড অব ইন্টারনাল কন্ট্রোল অ্যান্ড কমপ্লায়েন্স মুশতাক আহমেদকে ১৭ ফেব্রুয়ারি দুদকে হাজির থাকতে বলা হয়েছে।
১৮ ফেব্রুয়ারি হাজির থাকতে বলা হয়েছে বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফিন্যান্স কোম্পানি লিমিটেডের এমডি ইনামুর রহমানকে এবং মাসকুর আহমেদকে ।
সূত্রটি আরও জানায়, জাহাজ রপ্তানির নামে ঋণ জালিয়াতির মাধ্যমে আনন্দ শিপইয়ার্ড দেশের ১৪টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় ১ হাজার ৩০০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। জাহাজ নির্মাণের পূর্ব অভিজ্ঞতা না থাকলেও পর্যাপ্ত জামানত ছাড়া এসব ঋণ দেওয়া হয়েছিল। বাংলাদেশ ব্যাংকের বিশেষ পরিদর্শনে এসব জাল-জালিয়াতির তথ্য বেরিয়ে আসে।
এ বিষয়ে অভিযোগ আমলে নিয়ে ২০১৪ সালের এপ্রিল মাসে অনুসন্ধান শুরু করে দুদক। সংস্থাটির উপপরিচালক মীর জয়নুল আবেদীন শিবলীর নেতৃত্বে একটি দল বিষয়টির অনুসন্ধান করছে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন