বিজ্ঞাপন

কমিটিকে কর্মপরিধি ঠিক করে দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে অনুসন্ধান ও তদন্তসংশ্লিষ্ট কাজে দীর্ঘসূত্রতার কারণ চিহ্নিতকরণ ও সমাধানের সুপারিশ, অনুসন্ধান ও তদন্তসংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের দক্ষতা, যোগ্যতা, ভাবমূর্তি ও জবাবদিহির ক্ষেত্র পর্যালোচনাপূর্বক সুপারিশসহ মতামত প্রদান; অনুসন্ধান এবং তদন্তকালে কোনো কর্মকর্তা কর্তৃক দুর্নীতি বা অভিযোগের আওতাধীন ব্যক্তিকে হয়রানি করার সুযোগের ক্ষেত্রসমূহ চিহ্নিত করা এবং তা নিরসনের জন্য সুপারিশ করা; কমিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে উত্থাপিত দুর্নীতির অভিযোগ পর্যালোচনাপূর্বক করণীয় বিষয়ে মতামত প্রদান উল্লেখযোগ্য।

এ বিষয়ে দুদকের সচিব মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা ঘরে-বাইরে সকলের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিতে আইনগতভাবেই অঙ্গীকারবদ্ধ।’

এর আগে দুদক বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, অধিদপ্তর ও সংস্থার দুর্নীতি প্রতিরোধে প্রাতিষ্ঠানিক টিম গঠন করে অনুসন্ধান চালিয়েছিল। এবার অভ্যন্তরীণ দুর্নীতি প্রতিরোধে প্রাতিষ্ঠানিক কমিটি করল দুদক। দীর্ঘদিন ধরে দুদকের একশ্রেণির কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে। তারই পরিপ্রেক্ষিতে এ কমিটি করা হলো। যদিও দুদক বলছে, স্বচ্ছতা, জবাবদিহি ও কাজের গতিশীলতা বৃদ্ধি করা এর লক্ষ্য।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন