চুয়াডাঙ্গায় আজ রোববার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, চুয়াডাঙ্গার তাপমাত্রা ৭ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

জেলার বিভিন্ন জায়গা ঘুরে দেখা গেছে, ঘন কুয়াশা ও মাঝারি শৈত্যপ্রবাহের কারণে সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত সূর্যের দেখা মেলেনি। হেডলাইট জ্বালিয়ে সড়কে গাড়ি চলাচল করেছে।

কয়েক দিন ধরে তীব্র শীতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার তালতলা গ্রামের রিকশাচালক লাল্টু মিয়ার (৩৭) ভাষ্য, ‘শীতি শরিলডা কালা হয়ে যাচ্চে। পেটের জ্বালায় কুয়োর (কুয়াশা) মদ্দিই রিসকা নিইয়ে বেড়াইচি।’

পৌর এলাকার বাসিন্দা শাম্মী আকতার (৫৫) বলেন, ‘পাতলা খ্যাতাই শীত ঠেকাচ্চে না। রাতি ছিঁড়া ত্যানা (ছেঁড়া কাপড়) জ্বালিয়ে মাঝে মদ্দি শীত তাড়াচ্চি। অ্যাটটা গরম কাপুড় খুপ দরকার।’

তীব্র শীতের মধ্যেই হতদরিদ্র মানুষ গরম কাপড়ের জন্য ছুটে বেড়াচ্ছে। সরকারিভাবে শীতবস্ত্র জেলা ত্রাণ কার্যালয় থেকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে পৌঁছেছে। কিন্তু পদ্ধতিগত জটিলতার কারণে তা বিলি করা হয়নি বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

চুয়াডাঙ্গা আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলামের ভাষ্য, এখন মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ চলছে। এটি আরও কয়েক দিন থাকবে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন