বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

লন্ডনে কুইন এলিজাবেথ সেন্টারের চার্চিল হলে আয়োজিত বাংলাদেশ বিনিয়োগ শীর্ষ সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গতকাল বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। লন্ডনে অবস্থানরত প্রধানমন্ত্রী এই অনুষ্ঠানে ভার্চ্যুয়ালি যোগ দেন। পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি), বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) ও যুক্তরাজ্যের বাংলাদেশ দূতাবাস যৌথভাবে এ সম্মেলনের আয়োজন করে। সম্মেলনের মূল প্রতিপাদ্য—টেকসই প্রবৃদ্ধির জন্য অংশীদারত্ব গড়ে তোলা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের অটোমোবাইল, সমুদ্র অর্থনীতি, পর্যটন, নবায়নযোগ্য জ্বালানিসহ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের বিপুল সম্ভাবনা আছে। বিদেশি বিনিয়োগকারীরা এসব খাতে বিনিয়োগ করে লাভবান হতে পারেন। এ ছাড়া ব্রিটিশ বাংলাদেশিরা খাদ্য প্রক্রিয়াজাত শিল্পে বিনিয়োগ করতে পারেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে কৃষি খাতে বিপ্লব ঘটে গেছে। খাদ্য প্রক্রিয়াজাত শিল্পে বিনিয়োগ করে তরতাজা সবজি যুক্তরাজ্যে নিয়ে আসতে পারেন। আপনাদের সর্বোচ্চ সুবিধা দিতে আমাদের সরকার প্রস্তুত।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, যুক্তরাজ্য বাংলাদেশের তৃতীয় রপ্তানি গন্তব্য এবং বাংলাদেশে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বিনিয়োগকারী দেশ। দ্রুত নগরায়ণ, মধ্যবিত্ত ভোক্তা শ্রেণির বিকাশসহ নানা কারণে বাংলাদেশ এখন বিনিয়োগের জন্য অত্যন্ত আকর্ষণীয় গন্তব্য।

যুক্তরাজ্যের স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় সম্মেলন উদ্বোধনের পরপর একটি কর্ম অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির, বিএসইসির চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত উল ইসলাম, যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনীম, যুক্তরাজ্যের বাণিজ্য ও নীতিবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী পেনি মরডাউন্ট, বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ।

সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন বহুজাতিক স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের গ্রুপ চেয়ারম্যান জোস ভিনালস। তিনি জানান, সবুজ অর্থায়নে ৩০ হাজার কোটি ডলারের তহবিল গঠন করেছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড। তিনি আরও বলেন, নানা চ্যালেঞ্জের মধ্যেও বাংলাদেশের অর্থনীতি দ্রুত বিকাশমান।

বিদেশি বিনিয়োগকারীদের সামনে বাংলাদেশে বিনিয়োগের সম্ভাবনা তুলে ধরতে আগামী সোমবার যুক্তরাজ্যের ম্যানচেস্টার শহরে বিনিয়োগ সম্মেলনের আয়োজন করা হবে।

‘বাংলাদেশ-যুক্তরাজ্য সম্পর্ক নতুন করে গড়ার সময় এখন’: এদিকে বাসস জানায়, লন্ডনে গত বুধবার আয়োজিত ‘বাংলাদেশ অ্যাট ৫০: দ্য রিজিলেন্ট ডেলটা’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ-যুক্তরাজ্য দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক নতুন করে গড়ে তোলার এটাই সময়। আমাদের অংশীদারত্বকে দেখার ক্ষেত্রে প্রচলিত দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন ঘটানো প্রয়োজন।’

যুক্তরাজ্যের লন্ডনে ওয়েস্ট মিনস্টারে স্পিকার্স হাউস স্টেট রুমে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী যোগ দিতে গেলে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সদস্য রুশনারা আলী, হাউস অব লর্ডসের সদস্য লর্ড জিতেশ গাধিয়া তাঁকে স্বাগত জানান।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন