নবাবগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন

দ্রুত যাচাই-বাছাই তালিকা পাঠানোসহ সাত দফা দাবি

বিজ্ঞাপন

ভুয়া মুক্তিযোদ্ধাদের বাদ দিয়ে যাচাই-বাছাই তালিকা দ্রুত সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানোসহ সাত দফা দাবিতে গতকাল রোববার দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধারা মানববন্ধন করেছেন। উপজেলা কার্যালয়ের সামনে দুপুর ১২টায় ওই মানববন্ধন হয়। মানববন্ধন শেষে তাঁরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে স্মারকলিপি দেন।

এদিকে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারসহ যাচাই-বাছাই কমিটিচারসদস্য ইউএনও বজলুর রশীদের কাছে গত মঙ্গলবার লিখিত অভিযোগ করেছেন। উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. দবিরুল ইসলাম বলেন, গত ৪ ফেব্রুয়ারি নবাবগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই–বাছাই শেষ হয়। যাচাই–বাছাইয়ে দেখা যায়, দিশবন্দী হাতিশাল গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আকরাম হোসেনের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুস্বাক্ষরিত সনদটি (সনদ নম্বর-৩৮৫৬৩) জাল। এ ছাড়া মুক্তিবার্তা (লাল বই) নম্বর-০৩০৮১৩০২৫২ জাল। মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তালিকাভুক্ত হওয়ার জন্য এ দুটি দলিল সঠিক থাকা আবশ্যক। অথচ জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সিদ্দিক গজনবী যাচাই–বাছাই সভায় আকরামকে তালিকাভুক্ত করতে চাপ দেন। আকরামকে তালিকাভুক্ত না করায় সিদ্দিক গজনবী যাচাই–বাছাই তালিকায় স্বাক্ষর না করে সভা থেকে চলে যান। গত ১৮ মে পুনারায় যাচাই–বাছাই কমিটির সভা হয়। সেই সভাতেও আকরামকে তালিকায় রাখতে জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার চাপ দেন। এতে রাজি না হওয়ায় যাচাই–বাছাই তালিকাতে সই না করে তিনি চলে যান। এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার ইউএনওর কাছে একটি লিখিত অভিযোগও দেওয়া হয়।

সিদ্দিক গজনবী বলেন, তিনি এ ধরনের কোনো চাপ বা অনৈতিক দাবি করেননি। অনেকেই সব কাগজ দিতে পারেননি। এ কারণে তালিকা পাঠানো যাচ্ছে না।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন