ধর্ষণের ১০ মামলার আসামি 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত

বিজ্ঞাপন

চট্টগ্রামে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একাধিক ধর্ষণ মামলার এক আসামি নিহত হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার ভোরে নগরের বায়েজিদ বোস্তামি থানার শেরশাহ কলোনি এলাকায় এই ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে। নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মোহাম্মদ আশিকুর রহমান এই তথ্য জানান।

নিহত ব্যক্তির নাম বেলাল দফাদার (৪০)। পুলিশ বলছে, বেলালের বিরুদ্ধে ১৪টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে ১০টি ধর্ষণের মামলা।

‘বন্দুকযুদ্ধের’ স্থান থেকে আগ্নেয়াস্ত্র, গুলি ও ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করার দাবি পুলিশের। পুলিশ জানায়, বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় আহত নগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (বায়েজিদ বোস্তামী) পরিত্রাণ তালুকদার। তিনি প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মোহাম্মদ আশিকুর রহমান বলেন, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ জানতে পারে, বেলাল শেরশাহ এলাকায় অবস্থান করছেন। তাঁকে ধরতে পুলিশ গেলে তাঁর অনুসারীরা গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে তাঁর সহযোগীরা পালিয়ে যান। সহযোগীদের গুলিতে গুরুতর আহত হয়ে বেলালকে পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে তাঁকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা।

পুলিশ জানায়, ময়নাতদন্তের জন্য বেলালের লাশ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের মর্গে রাখা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, সাম্প্রতিক সময়ে বায়েজিদ এলাকায় শিশু ধর্ষণের ঘটনা বেড়ে গেছে। চকলেট দেওয়াসহ নানা প্রলোভন দেখিয়ে রাস্তায় খেলতে থাকা শিশুদের গাড়িতে তুলে বা আশপাশে কোথাও নিয়ে ধর্ষণের ঘটনা ঘটছে। এগুলোর পেছনে বেলাল জড়িত বলে দাবি পুলিশের। স্থানীয় লোকজন বেলালের গ্রেপ্তার দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন কয়েক দিন আগে। বেলাল বন্দুকযুদ্ধে নিহত হওয়ায় এলাকায় স্বস্তি ফিরে এসেছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন