বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

৪ নভেম্বর রাতে এক নারী চিকিৎসক বাদী হয়ে গুলশান থানায় শাকিল আহমেদের বিরুদ্ধে মামলাটি করেন। মামলায় বলা হয়, সম্প্রতি তাঁর সঙ্গে সাংবাদিক শাকিল আহমেদের সম্পর্ক হয়। গত আগস্টে শাকিল তাঁকে (ওই নারী) বিয়ে করার কথা বলে গুলশানের একটি আবাসিক হোটেলে দেখা করেন। সেখানে তাঁদের মধ্যে সম্পর্ক হয়। পরে সেপ্টেম্বরে একই হোটেলে তাঁরা দেখা করেন। একপর্যায়ে তিনি (ওই নারী) অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন। পরে শাকিল কৌশলে তার গর্ভপাত ঘটান। এরপর শাকিল তাঁকে আর বিয়ে করতে রাজি হননি।

মামলায় শাকিল আহমেদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও ভ্রূণ হত্যার অভিযোগ আনা হয়। এই মামলায় আজ আদালতে হাজির হয়ে আইনজীবীর মাধ্যমে আগাম জামিনের আরজি জানান শাকিল।

আদালতে শাকিল আহমেদের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মুরাদ রেজা, সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী মাসুদ বেগ। আদালতে মামলার বাদী ও তাঁর আইনজীবী এম সারোয়ার হোসেন শুনানিতে অংশ নেন। হাইকোর্টের জামিন আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করা হবে বলে জানান বাদীর আইনজীবী।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন