নওশাবার বিরুদ্ধে ৫৭ ধারার মামলার কার্যক্রমে স্থগিতাদেশ বহাল

বিজ্ঞাপন
default-image

তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় অভিনেত্রী ও মডেল কাজী নওশাবা আহমেদের বিরুদ্ধে করা মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশ বহাল রয়েছে। হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের করা আবেদনে ‘নো অর্ডার’ দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের আপিল বিভাগ আজ রোববার এ আদেশ দেন। নওশাবার আইনজীবী জ্যোতির্ময় বড়ুয়া জানান, মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে দেওয়া হাইকোর্টের আদেশ বহাল থাকছে ও মামলার কার্যক্রম স্থগিতই থাকছে।

ওই মামলা বাতিল চেয়ে নওশাবার করা এক আবেদনের শুনানি নিয়ে গত ২০ নভেম্বর হাইকোর্ট রুল দিয়ে মামলার কার্যক্রম ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেন। এই আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ আবেদন করে। গত ৩ ডিসেম্বর এটি চেম্বার আদালতে ওঠে। সেদিন আদালত আবেদনটি ৮ ডিসেম্বর আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠিয়ে দেন। এর ধারাবাহিকতায় আজ বিষয়টি ওঠে। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ। নওশাবার পক্ষে শুনানি করেন, জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ এফ হাসান আরিফ। সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী জ্যোতির্ময় বড়ুয়া।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন চলাকালে গত বছরের ৪ আগস্ট ফেসবুক লাইভে গুজব সৃষ্টির অভিযোগে রাজধানীর উত্তরা থেকে নওশাবাকে আটক করে র‌্যাব। পরদিন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় নওশাবার বিরুদ্ধে মামলা করে র‌্যাব-১ এর কর্মকর্তা আমিরুল ইসলাম। আদালতে হাজির করার পর তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে রিমান্ডে নেওয়া হয়। গত বছরের ২১ আগস্ট ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত তাঁকে জামিন দেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন