২০১৪ সাল প্রায় শেষ।এ বছরের গুরুত্বপূর্ণ কিছু কর্মকাণ্ডের জন্য নানা ব্যক্তিকে নানাভাবে পুরস্কৃত করা হচ্ছে। জনগণের পক্ষ থেকে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের উপহার দেওয়ার ব্যবস্থা থাকলে, কী দেওয়া যেত? তার কিছু প্রস্তাব দেখুন।

default-image

শামীম ওসমান
মানুষ ছাগল পালে, গরু পালে, মুরগি পালে। তবে তিনি সন্ত্রাসী লালন–পালন করে সমগ্র জাতির সামনে বিশাল উদাহরণ সৃষ্টি করেছেন। তাঁর লালিত–পালিত সন্ত্রাসীর ভয়ে মানুষের ঘুম হারাম! শীতলক্ষ্যা নদীও ভয়ে শুকিয়ে যাচ্ছে প্রায়! তাই তাঁকে অবশ্যই আরও কিছু খেলনা পিস্তল উপহার দেওয়া যায়। যেসব দিয়ে একদম লাইনে রাখতে পারবেন সাধারণ মানুষকে।

default-image

সৈয়দ মহসিন আলী
সারা বছর দেশের মানুষকে নানা রকম মন্তব্যের পাশাপাশি সভামঞ্চে ঘুমিয়ে ও গান শুনিয়ে বিনোদন দিয়েছেন। এ কারণে সমাজকল্যাণমন্ত্রীকে এক বোতল খাঁটি মধু ও একটি আরামদায়ক বালিশ উপহার দেওয়া যায়। নতুন বছরে তিনি মধু খেয়ে আরও ভালো গাইবেন আর দেশ নিয়ে ভাবতে ভাবতে ঘুমিয়ে পড়বেন।

default-image

তারেক রহমান
সারা বছর ইতিহাস নিয়ে নানা ধরনের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়ে ইতিহাসে অবদান রেখেছেন তারেক রহমান। তাই বিএনপির এই নেতাকে উপহার দেওয়া যেতে পারে ‘আষাঢ়ে গল্প সমগ্র’ বইটি। নতুন বছরে এই বই পড়ে নিত্য–নতুন ইতিহাস রচনায় তাঁর সুবিধা হবে!
শাজাহান খান

নামে নৌপরিবহনমন্ত্রী, আসলে তিনি বেশি সক্রিয় রাস্তায়! লঞ্চডুবি হোক, কিংবা সুন্দরবন তেলে ভেসে যাক—কিছুতেই মাথাব্যথা নেই তাঁর। তাই তাঁর জন্য দরকার চাকাবিশিষ্ট একটা নৌকা।

default-image

সিদ্দিকী নাজমুল আলম
সারা বছর কোনো অবদান না রাখলেও, বছর শেষে বিএনপির সিনিয়র নেতাদের ‘নেড়ি কুত্তার’ মতো পেটানোর ইচ্ছা পোষণ করায় তাঁকে একটা বড় বাঁশের বাগান উপহার দেওয়া যায়। যেন চাইলেই বাঁশ কেটে লাঠি বানাতে পারেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন