default-image

‘নয়নসমুখে তুমি নাই,/ নয়নের মাঝখানে নিয়েছ যে ঠাঁই’—কবিগুরুর গানটি যাঁরা শুনেছেন, অমর একুশে গ্রন্থমেলায় ঘুরতে ঘুরতে মনের অজান্তেই গানটির কথা মনে পড়ে যাবে। এই ‘মনে পড়া’র অনেকগুলো কারণের একটি হতে পারে মেলার বেশ কয়েকটি জায়গায় লেখা আছে চরণটি। আবার হতে পারে, প্রিয় লেখক, যাঁকে হয়তো আগের বইমেলায়ও দেখা গেছে, তিনি এবার নেই। এই ‘নেই’-এর মিছিলে প্রতিবছর যোগ হয় নতুন নতুন মুখ। কিন্তু দেহান্তর মানেই যে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাওয়া নয়, তার প্রমাণ মিলবে অমর একুশে গ্রন্থমেলায়—বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে কিংবা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। প্রতিদিনই। সোমবার মেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ‘অধ্যাপক জিল্লুর রহমান সিদ্দিকী’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। আজ মঙ্গলবার বিকেল চারটায় থাকছে ‘শিল্পী কাইয়ুম চৌধুরী’কে নিয়ে আলোচনা।
সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মেলার প্রবেশপথ দিয়ে ঢুকে সোজা কয়েক কদম এগিয়ে গেলে অবসর প্রকাশনীর প্যাভিলিয়ন। এই প্যাভিলিয়নের এক পাশে প্রয়াত লেখক হুমায়ূন আহমেদের বিশাল প্রতিকৃতি। সেখানে লেখা ‘একটি প্রতিষ্ঠানকে দাঁড় করিয়ে দেওয়ার কৃতিত্ব হুমায়ূন আহমেদের। হুমায়ূন আহমেদের দেবী অবসরকে এনে দিয়েছে জনপ্রিয়তা ও স্থিতিশীলতা। কেবল কৃতজ্ঞতা প্রকাশ এই সাফল্যের সমতুল্য হতে পারে না।’
পাঠকের হৃদয়ে, বইমেলার সবুজ চত্বরে হুমায়ূন আহমেদ মিশে আছেন। বই বিক্রিতে এগিয়ে আছে এমন প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এবারও হুমায়ূন আহমেদকে সবচেয়ে বেশি খুঁজছেন পাঠক। গত দুই বছরের মতো এবারও হুমায়ূন আহমেদের আলোকচিত্র দিয়ে অন্যপ্রকাশ সাজিয়েছে তাদের স্টলটি। ওপরে তাঁর বিশালাকৃতির আলোকচিত্রের দুই পাশে তাঁর দুটি পাণ্ডুলিপির প্রতিচ্ছবি, যার সামনে দাঁড়িয়ে অনেকেই তুলে নিচ্ছেন সেলফি।
প্রতিষ্ঠানটির একজন বিক্রয়কর্মী জানালেন, অন্যপ্রকাশ এখনো হুমায়ূন আহমেদের বই বিক্রির শীর্ষে। এ বছর হুমায়ূন আহমেদ পরিচালিত শেষ চলচ্চিত্র ঘেটুপুত্র কমলার চিত্রনাট্য প্রকাশিত হচ্ছে। অনন্যা, সময়, কাকলী, অবসরসহ হুমায়ূন আহমেদের বইয়ের অন্যান্য প্রকাশনীতেও তাঁর বই বিক্রির শীর্ষে। মেয়েকে নিয়ে মেলায় এসেছিলেন সেগুনবাগিচার গিয়াস আহমেদ। তিনি বললেন, হুমায়ূন আহমেদের যেসব বই সংগ্রহে নেই, সেগুলো কিনব।
না ফেরার দেশে চলে গেছেন, এমন অনেক গুণীর নতুন বই এবারের মেলায় এসেছে। প্রথমা প্রকাশনের বিক্রয় প্রতিনিধি জানালেন, নতুন বইয়ের তালিকায় থাকা মুহাম্মদ হাবিবুর রহমানের নাগরিকের জানা ভালো, এবিএম মূসার আমার বেলা যে যায় বই দুটি ভালো বিক্রি হচ্ছে। আগামী প্রকাশনী এবার ছেড়েছে সদ্যপ্রয়াত শিক্ষাবিদ সালাহ্উদ্দীন আহ্মেদের নতুন বই বঙ্গবন্ধু-বাঙালী সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও সমকালীন ভাবনা। প্রকাশক ওসমান গনি দাবি করলেন, তাঁর জানামতে এটিই সালাহ্উদ্দীন আহ্মেদের লেখা শেষ বই। আফসোস করে বললেন, ‘খুব ইচ্ছে ছিল স্যারকে দিয়ে বড় পরিসরে এই বইয়ের প্রকাশনা উৎসব করব, হলো না!’ তিনি জানালেন, তাঁদের প্রকাশিত হুমায়ুন আজাদের বইগুলো পাঠক খুঁজছেন। বেঙ্গল পাবলিকেশনস থেকে বেরিয়েছে জিল্লুর রহমান সিদ্দিকীর লেখা শামসুর রাহমান ও বন্ধুত্ব বইটি। নজরুল মঞ্চে কথা হলো ভাষাসৈনিক আহমদ রফিকের সঙ্গে। জানালেন, মেলায় আসা তাঁর চারটি নতুন বইয়ের একটি হারিয়ে যাদের খুঁজি। বইটিতে চলে যাওয়া মানুষদের নিয়ে কথা বলেছেন তিনি। মেলায় প্রকাশিত অনেকগুলো বইয়ের প্রচ্ছদে প্রয়াত শিল্পী কাইয়ুম চৌধুরী মিশে আছেন।
মেলায় অভ্যাগতদের স্বাগত জানানোর টিএসসি-দোয়েল চত্বর সড়কের একদিকে আণবিক শক্তি কমিশন এবং অন্যদিকে দোয়েল চত্বরের সামনে বসেছে প্রবেশ তোরণ। ডিজিটাল প্রিন্টের মাধ্যমে এ দেশের মনীষীদের চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। আকর্ষণ হচ্ছে, তোরণের উপরিভাগে একপাশে রবীন্দ্রনাথ, নজরুল, সুফিয়া কামাল, জয়নুল আবেদিন, জসীম উদ্দীনসহ গুণীজনদের প্রতিকৃতি। তেমনি আবার প্রদর্শন করা হচ্ছে সদ্যপ্রয়াত গুণীজন মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান, জিল্লুর রহমান সিদ্দিকী, সালাহ্উদ্দিন আহ্মেদ, কাইয়ুম চৌধুরীসহ ১১ জন গুণীর ছবি।
নজরুল মঞ্চের চিত্র
নজরুল মঞ্চে হঠাৎ চিৎকার শোনা গেল। চিৎকারের উৎস কণ্ঠশিল্পী ফাহমিদা নবীকে ঘিরে কয়েকজন তরুণী। লেখক শিল্পী রহমানের নতুন বই পাহাড় হবোর মোড়ক খুলতে এসেছিলেন শিল্পী।
সোমবার মেলার ১৬তম দিনে একাডেমির নজরুল মঞ্চে ১৫টি নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচিত হয়েছে। এর মধ্যে একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান অ্যাডর্ণ পাবলিকেশন্স থেকে প্রকাশিত ফারিয়া প্রেমার আরশি, শেলী নাজের পুরুষসমগ্র, এ বি এম হোসেনের পড়ন্ত বেলার গল্প, মোস্তফা শরীফের একচোখা দৈত্য, আখতার উদ্দিন মানিকের শাহজাদপুর কৃষক বিদ্রোহ ও ঠাকুর জমিদার, বিজয় প্রকাশ থেকে প্রকাশিত তারিক সজীবের তুমি আমারই ছিলে এবং দারুচিনি প্রকাশনী থেকে আসা লীনা হাসিনা হকের লেখা গোলাপবালা বইগুলোর মোড়ক উন্মোচন করেন। ভাষাসৈনিক আহমদ রফিক উন্মোচন করেন আমিনুল ইসলাম বাদশাহ স্মারকগ্রন্থ-এর মোড়ক। পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল উন্মোচন করেন শামসুল আলমের রাজনৈতিক ডামাডোলে স্বপ্ন যাত্রার অর্থনীতি বইটির মোড়ক।
বাংলা একাডেমির সমন্বয় ও জনসংযোগ উপবিভাগ থেকে জানা গেছে, সোমবার মেলায় নতুন বই এসেছে ৯৮টি।
স্টল বাতিল: মেলার নীতিমালা ভঙ্গ করার অভিযোগে সোমবার বিকেলে রোদেলা প্রকাশনীর স্টলটি বন্ধ করে দেয় মেলা পরিচালনা কমিটি। অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৫-এর নীতিমালা অনুযায়ী এ স্টল বন্ধ করা হয়েছে।
মেলা মঞ্চের আয়োজন
সোমবার মেলার মূল মঞ্চে ‘অধ্যাপক জিল্লুর রহমান সিদ্দিকী’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আহমেদ রেজা। আলোচনায় অংশ নেন কাজল বন্দ্যোপাধ্যায়, অধ্যাপক শাহীনুর রহমান, রাশিদ আশকারী ও মোহাম্মদ জয়নুদ্দীন। সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক আবুল আহসান চৌধুরী।
আজ মঙ্গলবার বিকেলে মেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে ‘শিল্পী কাইয়ুম চৌধুরী’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। এতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন শিল্পী রফিকুন নবী। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন মফিদুল হক, মইনুদ্দীন খালেদ ও সাজ্জাদ শরিফ। সভাপতিত্ব করবেন শিল্পী সমরজিৎ রায় চৌধুরী।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন