default-image

নরসিংদী শহরে কোভিড–১৯–এ আক্রান্ত হয়ে মনোয়ারা বেগম (৬৫) নামের এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাত একটার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। ১০–১২ দিন ধরে তিনি জ্বর, ঠান্ডা ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন।

আজ শনিবার দুপুরে প্রথম আলোকে এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেন সিভিল সার্জন মোহাম্মদ ইব্রাহিম।
মারা যাওয়া মনোয়ারা বেগম নরসিংদী শহরের পশ্চিম কান্দাপাড়া এলাকার বাসিন্দা। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপে ভুগছিলেন।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মনোয়ারা বেগমের করোনাভাইরাসের উপসর্গ জ্বর–শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে গত ২ জুলাই তিনি কোভিডে আক্রান্ত রোগীদের জন্য নির্ধারিত নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নমুনা পরীক্ষা করান। গতকাল রাতে ওই নমুনা পরীক্ষার ফলাফল হাতে পায় সিভিল সার্জন কার্যালয়। রাত নয়টার দিকে তাঁর পরিবারের সদস্যদের কাছে এ তথ্য জানানো হয়। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই মনোয়ারা বেগমের শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে, তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়।
নরসিংদীর সিভিল সার্জন মোহাম্মদ ইব্রাহিম জানান, গতকাল রাতে পাওয়া ফলাফলে মনোয়ারা বেগম কোভিডে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হন এবং ওই রাতেই তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান। তাঁর পরিবারের সদস্য ও সংস্পর্শে আসা লোকজনের নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে এবং তাঁদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বাধ্য করা হবে।

এ নিয়ে কোভিডে আক্রান্ত হিসেবে জেলার তালিকাভুক্ত ৩৬ ব্যক্তি মারা গেছেন। তাঁদের মধ্যে সদর উপজেলার ২৩ জন, বেলাব ও রায়পুরা উপজেলায় ৪ জন করে, মনোহরদী ও পলাশ উপজেলায় ২ জন করে এবং শিবপুর উপজেলায় ১ জন রয়েছেন। অন্যদিকে উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরও অন্তত ৪৫ জন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0