দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা আরিফ সাদেক আজ রোববার বিকেলে গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তলবি নোটিশে এম এ কাশেম ও মো. শাহজাহানের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়, এফডিআর করার নামে প্রতিষ্ঠানের অর্থ লোপাট, স্ত্রী ও স্বজনদের চাকরি দেওয়ার নামে অনৈতিকভাবে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়া, সরকারি শুল্ক ফাঁকি দিয়ে গাড়ি কেনা, অবৈধভাবে বিলাসবহুল গাড়ির ব্যবহারসহ বিভিন্ন অনৈতিক সুযোগ–সুবিধা গ্রহণের অভিযোগের কথা উল্লেখ করা হয়।

নোটিশে বলা হয়েছে, সুষ্ঠু অনুসন্ধানের স্বার্থে অভিযোগগুলোর বিষয়ে তাঁদের বক্তব্য শোনা ও গ্রহণ করা প্রয়োজন। এসব অভিযোগের বিষয়ে আগামী ২ জানুয়ারি হাজির হয়ে অনুসন্ধান টিমের কাছে বক্তব্য দিতে অনুরোধ করা হয়েছে।

নির্ধারিত সময়ে হাজির হয়ে বক্তব্য দিতে ব্যর্থ হলে এসব অভিযোগের বিষয়ে তাঁদের কোনো বক্তব্য নেই মর্মে গণ্য করা হবে বলে দুদকের পক্ষ থেকে সতর্ক করা হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন