নারায়ণগঞ্জে কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত আরও দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এ রোগে ২ জন চিকিৎসক, জ্যেষ্ঠ নার্সসহ ১১৯ জনের মৃত্যু হলো। জেলায় নতুন করে আরও ৪২ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ৩৮৫। মঙ্গলবার বিকেলে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত আরও দুজনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁরা হলেন শহরের আমলাপাড়া এলাকার ৫৫ বছরের সমির কুমার সাহা ও সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি এলাকার ৬৮ বছরের ওয়াহিদ মিয়া। শহরের খানপুরে অবস্থিত ৩০০ শয্যা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে সোমবার বিকেলে ও রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁদের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩৪১ জনের। নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৪২ জনের। আক্রান্ত হওয়ার পর আইসোলেশনে মোট সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৪ জন। নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৬ হাজার ৭৭১ জনের।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, সিটি করপোরেশন এলাকায় কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৬৪ জনের, আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৮৮৯ জন, নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ৮ হাজার ৫৯ জনের। আইসোলেশনে থেকে সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪১৪ জন।

সদর উপজেলায় মৃত্যু হয়েছে ২২ জনের, আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ২৭৭ জন, সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৩১ জন। বন্দর উপজেলায় মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের, আক্রান্ত হয়েছেন ১৯৬ জন, সুস্থ হয়েছেন ১২১ জন। আড়াইহাজারে মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের, আক্রান্ত হয়েছেন ৫১১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৪০২ জন। রূপগঞ্জ উপজেলায় ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৪০ জন। আইসোলেশনে সুস্থ হয়েছেন ৭০১ জন। সোনারগাঁয়ে মৃত্যু হয়েছে ১৬ জনের, আক্রান্ত হয়েছেন ৪৭২ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৩৩৫ জন।

গত ৭ এপ্রিল করোনাভাইরাস সংক্রমণের ক্ষেত্রে নারায়ণগঞ্জকে অতি ঝুঁকিপূর্ণ জেলা হিসেবে চিহ্নিত করে আইইডিসিআর।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0