default-image

অবরোধ-হরতালে ক্ষতিগ্রস্ত বাস, ট্রাক ও অন্য যানবাহনের মালিকদের আর্থিক সহযোগিতার চেক হস্তান্তর করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
আজ বুধবার প্রথম দফায় প্রধানমন্ত্রী তাঁর তেজগাঁও কার্যালয়ে ১৫৬টি গাড়ির ১৪৬ জন মালিকের কাছে ৪ কোটি ২০ লাখ ৬৫ হাজার টাকার চেক বিতরণ করেন। খবর বাসসের।
গত দুই মাসে বিএনপি-জামায়াত জোটের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে এসব গাড়ি পুড়ে যায় ও ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিটি গাড়ির মালিককে সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেওয়ার সময় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, গত জানুয়ারি থেকে বিএনপি-জামায়াত জোটের অবরোধ-হরতালে বাস, ট্রাকসহ প্রায় ১ হাজার ৮০০ যানবাহন পুড়ে গেছে বা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তিনি বলেন, এ পর্যন্ত ৮২৩টি গাড়ির মালিক আর্থিক সহযোগিতার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেছেন। তিনি আরও বলেন, এসব গাড়ির মধ্যে ২৮৭টি গাড়ি পুড়ে গেছে ও ৫৩৬টি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে।
ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রথম দফায় ১৫৬টি গাড়ির ১৪৬ জন মালিককে তাঁদের যানবাহনের ক্ষতির জন্য প্রধানমন্ত্রী আর্থিক সহযোগিতা দেন। তিনি আরও বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত অবশিষ্ট মালিকদের পরবর্তী একাধিক ধাপে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর এই আর্থিক সহযোগিতা ক্ষতিগ্রস্ত গাড়ির মালিকদের দেওয়া তাঁর দৃঢ় ও অব্যাহত অঙ্গীকারেরই প্রকাশ।’ সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোটের হরতাল ও অবরোধ চলাকালে নিহত ও আহত চালক এবং চালকের সহকারীদেরও প্রধানমন্ত্রী আর্থিক সহযোগিতা দেবেন।
বর্তমান সংকটকালে জনগণের পাশে দাঁড়ানোয় এবং যাত্রীসেবা দেওয়ার জন্য ওবায়দুল কাদের গাড়ির মালিকদের ধন্যবাদ জানান। তিনি একে বড় ধরনের ত্যাগ হিসেবে উল্লেখ করেন। মন্ত্রী গাড়ির মালিকদের আরও আশ্বস্ত করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী গাড়ির মালিকদের দুঃসময়েও তাঁদের পাশে থাকবেন।
অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম, ইকবাল সোবহান চৌধুরী, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব এ কে এম শামীম চৌধুরী, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি কে এনায়েত উল্লাহ প্রমুখ। প্রধানমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব-২ সাইফুজ্জামান শিখর অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন