সরকারি দলের সংসদ সদস্য মো. মোজাফ্ফর হোসেনের এক প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী সংসদে জানান, বাংলাদেশ প্রধানত যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, ফ্রান্স, ইতালি, নেদারল্যান্ডস, বেলজিয়ামসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশ; জাপান, কানাডা, দক্ষিণ কোরিয়া, ভারতসহ এশিয়ার বিভিন্ন দেশ এবং মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে পণ্য রপ্তানি করে থাকে। ২০২০-২১ অর্থবছরে বিশ্বের ২০৩টি দেশে ৭৫১টি পণ্য রপ্তানি করা হয়েছে এবং পণ্য রপ্তানি করে এই সময়ে ৩৮ দশমিক ৭৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করেছে।

আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদের এক প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, কিছুদিন পূর্বে সয়াবিন তেল মজুত করে বাজারে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টির মাধ্যমে সরকারের বিরুদ্ধে জনসাধারণকে দাঁড় করানোর অপচেষ্টার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, সয়াবিন তেল মজুত করে বাজারে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মাধ্যমে পরিচালিত বাজার মনিটরিং টিম দিয়ে দায়ী ব্যক্তিদের জরিমানা করা হয়েছে। জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার মাধ্যমে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে জরিমানা আরোপ ও আদায় করা হয়েছে। পাশাপাশি দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলাও করা হচ্ছে। তা ছাড়া সয়াবিন তেলের বাজার পরিস্থিতি স্থিতিশীল রাখতে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মাধ্যমে সয়াবিন তেল উৎপাদনকারী ও রিফাইনারি মিল, পাইকারি বাজার এবং খুচরা বাজার তদারক করা বা অভিযান চালানো হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের ১ ফেব্রুয়ারি ২০২২ থেকে ৩১ মে ২০২২ পর্যন্ত ৪ হাজার ১৩৩টি বাজার তদারকির মাধ্যমে বিভিন্ন আইনের অধীন বিভিন্ন অপরাধে ৯ হাজার ৭৫০টি প্রতিষ্ঠানকে ৬ কোটি ৭৮ লাখ ২৭ হাজার ৪০০ টাকা জরিমানা আরোপ ও আদায় করা হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন