নির্বাচন আমাদের কাছে পরীক্ষার মতো। প্রতিটি নির্বাচন সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও সবার কাছে গ্রহণযোগ্য করে নিজেদের মর্যাদা ফিরিয়ে আনতে হবে। আমরা কোনো প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন চাই না বলে মন্তব্য করেছেন দুই নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদত হোসেন চৌধুরী।

আজ রোববার সুনামগঞ্জ-২ আসনের (দিরাই ও শাল্লা) উপনির্বাচনকে সামনে রেখে জেলার সার্কিট হাউস মিলনায়তনে এক মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন তাঁরা।

মাহবুব তালুকদার বলেন, ‘দিরাই ও শাল্লা উপনির্বাচনে যদিও সব দল অংশ নেয়নি, তারপরও এটি আমাদের কাছে তাৎপর্যপূর্ণ। আমরা এই নির্বাচনে মাধ্যমে নিজেদের সংহত করতে চাই। স্বাধীনতার মাসে এ নির্বাচন হচ্ছে। নির্বাচনে একটুও কালি পড়ুক আমরা তা চাই না।’ আইনশৃঙ্খলার বিষয়ে শূন্য সহনশীলতা নীতি (জিরো টলারেন্স) নেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এ সময় নির্বাচন কমিশনার শাহাদত হোসেন চৌধুরী বলেন, নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে যার যে দায়িত্ব আছে, সেটি সঠিকভাবে পালন করতে হবে।

সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আইনুর আক্তার পান্না, সুনামগঞ্জে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের ২৮ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল নাসির উদ্দিন আহমেদ, পুলিশ সুপার মো. হারুন-অর-রশীদ, উপনির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা এস এম এজহারুল হক, দিরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তৌহিদুজ্জামান পাভেল প্রমুখ।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি সাংসদ ও আওয়ামী লীগের বর্ষীয়ান নেতা সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মৃত্যুতে এই আসনটি শূন্য হয়। ৩০ মার্চ অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের স্ত্রী জয়া সেনগুপ্ত। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন সায়েদ আলী মাহবুব হোসেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন