default-image

ফেনীতে নতুন করে আরও ১১ জনের শরীরে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় করোনায় আক্রান্তের মোট সংখ্যা দাঁড়াল ৮৩৮। এর মধ্যে ৪৬১ জন ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন। আর মারা গেছেন ১৭ জন। ফেনীর ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন এস এম মাসুদ রানা আজ মঙ্গলবার দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

নতুন আক্রান্ত ১১ জনের মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় রয়েছেন ৪ জন, সোনাগাজী উপজেলায় ৬ জন ও ফুলগাজী উপজেলায় একজন রয়েছেন।

এদিকে, করোনায় আক্রান্ত ফেনীর সিভিল সার্জন মো. সাজ্জাদ হোসেনসহ ১৮ জনকে ঢাকাসহ অন্যত্র স্থানান্তর করা হয়েছে। জেলায় মোট করোনায় আক্রান্ত ৮৩৮ জনের মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় রয়েছেন ৩৩৩ জন, দাগনভূঞায় ১৮১ জন, ছাগলনাইয়ায় ১০৩ জন, সোনাগাজীতে ১৩২ জন করে, পরশুরামে ৩৫ জন ও ফুলগাজীতে ৪২ জন রয়েছেন। এ ছাড়া পাশের চট্টগ্রাম, মিরসরাই, চৌদ্দগ্রাম ও সেনবাগের ১২ জন করোনা রোগী ফেনীতে চিকিৎসাধীন।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যমতে, গত ১৬ এপ্রিল ছাগলনাইয়া উপজেলার রাধানগর ইউনিয়নের পশ্চিম মধুগ্রামের এক যুবক ‘পজিটিভ’ শনাক্তের মাধ্যমে জেলায় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। তিনি ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকায় একটি মুঠোফোনের সেন্টারে চাকরি করতেন।

গত আড়াই মাসে জেলা থেকে ৪ হাজার ৯৩৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এসব নমুনা পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রামের ফৌজদারহাট বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি), চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় এবং নোয়াখালী আবদুল মালেক উকিল মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়। আজ মঙ্গলবার পর্যন্ত ৪ হাজার ৫৪৭ জনের নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদন পাওয়া গেছে। আরও ৩৯১ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট অপেক্ষাধীন রয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন