প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের দিন (শুধু ২৫ জুন) খুলনা জোনের আওতাধীন খানজাহান আলী (রূপসা) সেতু ও দড়াটানা সেতু, বরিশাল জোনের আওতাধীন দোয়ারিকা-শিকারপুর সেতু, দপদপিয়া সেতু, গাবখান সেতু, বলেশ্বর সেতু, পটুয়াখালী সেতু, শেখ রাসেল সেতু, শেখ কামাল সেতু, শেখ জামাল সেতু ও পায়রা (লেবুখালী) সেতু এবং গোপালগঞ্জ জোনের আওতাধীন মোল্লাহাট সেতু, আচমত আলী খান বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতু, কালনা ফেরি ও শেখ লুৎফর রহমান সেতু (পাটগাতি সেতু) যানজটমুক্ত রাখার উদ্দেশ্যে বর্ণিত ফেরি ও সেতু থেকে টোল আদায় মওকুফ করা হলো।

এর আগে গত সোমবার ঢাকা–মাওয়া মহাসড়কের বুড়িগঙ্গা (পোস্তগোলা), ধলেশ্বরী ও আড়িয়াল খাঁ সেতুর টোল মওকুফ করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছিল সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ। তখন প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের দিন যানবাহনের চলাচল যানজটবিহীন ও নির্বিঘ্ন করার লক্ষ্যে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন