সবার পরনে ছিল সবুজ টি-শার্ট, মুখে মাস্ক, হাতে গ্লাভস আর হাতে ছিল ছিল ঝাড়ু ও পলিব্যাগ। সবাই দাঁড়ানো। পরিচ্ছন্নতা অভিযানের একটি প্রতীকী ‘রোড শো’। গতকাল শুক্রবার বিকেলে ‘পরিচ্ছন্নতা শুরু হোক আমার থেকে’ স্লোগানে ‘ঢাকা ক্লিন’ নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এই রোড শোর আয়োজন করে। পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে মানুষের মাঝে সচেতনতা তৈরির জন্য তাঁরা এই আয়োজন করেন।
ঢাকা ক্লিনের উদ্যোগে এই রোড শোতে প্রায় দুই হাজার স্বেচ্ছাসেবী বিকেল চারটা থেকে সাড়ে চারটা পর্যন্ত শাহবাগ থেকে বিজয় সরণি পর্যন্ত সড়কের এক পাশে দাঁড়িয়ে জনসচেতনতামূলক প্রচার চালান।
ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী নুসরাত জাহান দুই মাস ধরে এখানে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করছে। নুসরাত বলে, ‘প্রতি শুক্রবার আমরা ঢাকার বিভিন্ন নোংরা জায়গা পরিষ্কার করি। এ জন্য মানুষ আমাদের ঝাড়ুদারও বলে।’
আবদুল্লাহ ফাইয়াজ প্রথমবারের মতো এ রকম পরিচ্ছন্নতা অভিযানে অংশ নিয়েছেন। রাজউক উত্তরা মডেল কলেজের এ শিক্ষার্থী বলেন, এ ধরনের আয়োজনে অংশ নিয়েই তাঁরা ক্ষান্ত হবেন না। নিজ নিজ এলাকাতেও চেষ্টা করবেন পরিচ্ছন্নতা অভিযান ছড়িয়ে দিতে।
রোড শোতে সার্ক ফোয়ারার সামনে আয়োজকেরা পরি ও স্বপ্ন নামে মাসকট নিয়ে উপস্থিত হয়। আয়োজকেরা বলছেন, এ মাসকটগুলো পরিচ্ছন্নতার দূত, যারা তাদের বার্তা মানুষের কাছে পৌঁছে দেবে।
বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির চারুকলা বিভাগের পরিচালক শিল্পী মনিরুজ্জামান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন। তিনি বলেন, ‘আসুন, আমরা নিজ হাতে পরিষ্কার করি। আর যাঁরা পরিচ্ছন্নতার কাজ করেন, তাঁদেরও সহায়তা করি। আমরাই দেশটাকে সুন্দর করব।’
ঢাকা ক্লিনের প্রধান সমন্বয়ক ফরিদ উদ্দিন বলেন, নতুন প্রজন্মের কাছে তাঁরা পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ তুলে দিতে চান। যত্রতত্র ময়লা না ফেলে পরিবেশ নোংরা করা থেকে বিরত থাকতে সবার প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0