পার্বত্য চট্টগ্রামে বিদেশিদের ভ্রমণ, চলাফেরা, স্থানীয় আদিবাসীদের দেশি ও বিদেশি নাগরিকদের সভা করা বা কথা বলাতে সরকারি বিধিনিষেধে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে পার্বত্য চট্টগ্রাম কমিশন (সিএইচটি কমিশন)।
গতকাল রোববার এক বিবৃতিতে সিএইচটি কমিশন এসব বিধিনিষেধকে অসাংবিধানিক ও পার্বত্য চুক্তির সঙ্গে সাংঘর্ষিক বলে অভিহিত করে দ্রুত এসব প্রত্যাহারের আহ্বান জানায়।
বিবৃতিতে বলা হয়, গত ৭ জানুয়ারি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সভার পরিপ্রেক্ষিতে ২২ জানুয়ারি নির্দেশনা জারি করা হয়। এই নির্দেশনায় স্থানীয়দের সঙ্গে দেশি বা বিদেশি নাগরিকদের কথা বলা বা সভা করতে স্থানীয় প্রশাসন, সেনাবাহিনী বা বিজিবির উপস্থিতি নিশ্চিত করার নির্দেশনা দেওয়া হয়। এতে পার্বত্য চট্টগ্রাম কমিশনের নাম থেকে ‘কমিশন’ শব্দটি বাদ দেওয়া, পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে আদিবাসী পুলিশ-আনসার সদস্যদের পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে অন্যত্র বদলি করাসহ নানা নির্দেশ দেওয়া হয়। এই সিদ্ধান্ত পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নের ওপর প্রভাব ফেলবে। পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসকারী আদিবাসীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি নিয়ে প্রশাসন বা সেনা-বিজিবির উপস্থিতিতে কথা বলতে হবে—এ নির্দেশনা জাতিবিদ্বেষী, ব্যক্তিস্বাধীনতা হরণের শামিল এবং অসাংবিধানিক।
বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন সিএইচটি কমিশনের তিন কো-চেয়ারপারসন এরিক এভব্যুরি, সুলতানা কামাল ও এলসা স্টামাতোপৌলৌ। বিজ্ঞপ্তি।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন