কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে গতকাল সোমবার সকালে পুকুরে ডুবে সিজন সৌরভ (২২) নামে এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে।

 সৌরভ অর্থনীতি বিভাগের স্নাতক (সম্মান) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ও মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার দরিয়াপুর গ্রামের বি এম মশিউর রহমানের ছেলে ছিলেন।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী কলেজের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রাজু আহমেদ জানান, সৌরভ সকাল সাড়ে সাতটার দিকে পুকুরের পাশে বসে গিটার বাজাচ্ছিলেন। এ সময় সৌরভ বলেন, ‘আজ আমার খুব ক্লান্ত লাগছে।’ ৮টা ২৫ মিনিটের দিকে তিনি লুঙ্গি পরে জুতা খুলে পুকুরে নামেন। প্রায় দেড় শ গজ প্রশস্ত পুকুরে সাঁতার কেটে ওপারে যান। ফেরার সময় চিত হয়ে সাঁতার কাটছিলেন। হঠাৎ মাঝপথে তিনি তলিয়ে যান।

 কলেজের কিছু ছাত্র, স্থানীয় কয়েকজন ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে সৌরভকে উদ্ধার করেন। হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে লাশ কলেজে নেওয়া হয়। মৃত সৌরভের বাবা বি এম মোসিউল রহমান প্রথম আলোকে জানান, তাঁর দুই ছেলের মধ্যে সৌরভ ছোট ছিল।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি আবদুল খালেক বলেন, পরিবারের কোনো আপত্তি না থাকায় জেলা প্রশাসকের অনুমতিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন