default-image

 প্রতিদিন সকালে স্কুলে যাওয়ার মতো করে সাইবার ক্যাফেতে যেতে হতো। সাইবার ক্যাফেগুলোর নাম হতো এ রকম, ‘ঢাকা কলেজিয়েট সাইবার ক্যাফে’ কিংবা ‘খুলনা জিলা সাইবার ক্যাফে’।
 কিছু কিছু সাইবার ক্যাফে ছেলেমেয়েদের জন্য আলাদা হতো। যেমন: ‘আজিমপুর গার্লস সাইবার ক্যাফে’ কিংবা ‘গভ. ল্যাব. বয়েজ সাইবার ক্যাফে’।
 গার্লস সাইবার ক্যাফের সামনে প্রতিদিন অনেক ছেলেপেলে ঘোরাঘুরি করত।
 একদল থাকত ফাঁকিবাজ। তারা ফেসবুক ইউজ না করে পড়ালেখা করত, সিনেমা দেখত। আরেক দল থাকত ফেসবুক ইউজ ছাড়া কিছুই বুঝত না। প্রথম দল দ্বিতীয় দলকে ডাকত আঁতেল নামে। দ্বিতীয় দল প্রথম দলকে খারাপ ছেলে বলে ধরে নিত।
 ফাঁকিবাজদের বাবারা সুযোগ পেলেই বকা দিতেন এভাবে, ‘সারা দিন টই টই করে ঘুরে বেড়ানো। কোনো কাজ নেই। ফেসবুক ইউজে তো মনোযোগই নেই। বলি, একটা রিকশা কিনে দিই, ফেসবুক ইউজ না করে রিকশা চালা।’ মা বলতেন, ‘বলি সন্ধ্যা হয়েছে, পড়ালেখা বাদ দিয়ে এবার একটু ফেসবুকে বসো।’
 প্রাইভেট টিউটর বকা দিতেন, ‘ফেসবুক ইউজ বাদ দিয়ে করোটা কী? গত তিন দিন ফেসবুকে লগইনই করোনি। কতগুলো ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট আর মেসেজ জমা হয়েছে জানো? এভাবে করলে চলবে?’
 নিয়মিত ফেসবুক ব্যবহারকারীদের মা পাশের বাসার ভাবিকে বলতেন, ‘জানেন ভাবি, আমার বাচ্চাটা না ফেসবুক ছেড়ে উঠতেই চায় না। এত লক্ষ্মী হয়েছে, একদম ওর বাবার মতো। আমার মনে হয় ফেসবুক ইউজ করে ও আমাদের মুখ উজ্জ্বল করবে।’
 শহরের বিভিন্ন মোড়ে সাইনবোর্ডে লেখা থাকত, ‘আপনার সন্তানকে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে দিন।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন