বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, কয়েক দিনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির নামে অর্ধশত শিক্ষার্থী ও অভিভাবকের মুঠোফোন নম্বরে একটি খুদে বার্তা পাঠানো হয়েছে। এতে লেখা, ‘প্রিয় শিক্ষার্থী, করোনাভাইরাসের কারণে তোমাদের ৪ হাজার ৫০০ টাকা বিকাশে দেওয়া হচ্ছে। বিকাশের মাধ্যমে টাকা গ্রহণের জন্য শিক্ষা বোর্ডের ০১৯৯০-৮১৭১২৬ নম্বরে যোগাযোগ করুন।’—শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি
অভিভাবকেরা বলেন, প্রতারক চক্র বিকাশে বৃত্তির টাকা পাঠানোর ফাঁদ পেতে মুঠোফোনে যোগাযোগ করে একটি গোপন কোড পাঠাচ্ছে। সেই কোড তাঁরা মুঠোফোনে জানতে চাইছেন। এই কোডের মাধ্যমে বিকাশ অ্যাকাউন্ট থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে টাকা।

শিবগঞ্জের সাংবাদিক খালিদ হাসান বলেন, তাঁর পরিবারে কোনো শিক্ষার্থী নেই। এ কারণে কৌতূহলবশত তিনি পাঠানো নম্বরে যোগাযোগ করেন। তখন ফোনের অপর প্রাপ্ত থেকে একজন ব্যক্তি বলেন, ‘বাংলাদেশ বোর্ড থেকে বলছি, উপবৃত্তির টাকা পেতে আপনার বিকাশ নম্বর পাঠান।’ বিকাশ নম্বর পাঠান খালিদ হাসান। সেই বিকাশ নম্বরে একটি ভেরিফিকেশন কোড পাঠিয়ে দ্রুত কোডটি তাঁকে জানাতে বলেন। এবার তিনি (খালিদ) প্রতারক চক্র বুঝতে পেরে কথোপকথনের একপর্যায়ে কোড না পাঠিয়ে ফোন কেটে দেন।

মোকামতলা সরকারি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফজলুর রহমান বলেন, শিক্ষামন্ত্রীর নামে খুদে বার্তা পাঠিয়ে অন্তত ৫০ জন শিক্ষার্থীর অভিভাবকের কাছ থেকে বিকাশ নম্বর হ্যাক করে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র।

উপবৃত্তি নিয়ে প্রতারণার বিষয়ে কেউ কোনো অভিযোগ করেননি বলে জানান শিবগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এস এম সারওয়ার জাহান। শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে থানায় কেউ কোনো অভিযোগ করেননি। সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করলে প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন