default-image

চলে গেলেন বঙ্গবন্ধুর সহকারী প্রেস সচিব সাংবাদিক আমিনুল হক বাদশা (৭৩)। যুক্তরাজ্যের স্থানীয় সময় গত সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে একটি হাসপাতালে তিনি শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।
আমিনুল হকের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া ও চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ শোক প্রকাশ করেছেন। জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এবং বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেননও তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন।
হৃদ্রোগের জটিলতায় তিনি বেশ কয়েক মাস থেকে কেন্টের অরপিংটন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তিনি এক ছেলে, এক মেয়ে ও স্ত্রী রেখে গেছেন। কুষ্টিয়ায় জন্ম নেওয়া আমিনুল হক ১৯৬৩ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে সমাজবিজ্ঞানে মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় তিনি ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যুক্ত হন। তৎকালীন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইকবাল হল (বর্তমান সার্জেন্ট জহুরুল হক) শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি।
রাজনীতির পাশাপাশি ছাত্রজীবন থেকেই সাংবাদিকতায় জড়িত ছিলেন আমিনুল হক বাদশা। ১৯৬৯ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহকারী প্রেস সচিবের দায়িত্ব পান। ১৯৭৫ সালে সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হলে তিনি যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমান। যুক্তরাজ্যে প্রকাশিত বিভিন্ন বাংলা সাপ্তাহিকে কলাম লেখার পাশাপাশি ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক হিসেবে কাজ করতেন আমিনুল হক বাদশাহ।

বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন