default-image

বন্যাদুর্গত এলাকার সব স্কুল–কলেজ অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহারের জন্য জরুরি ভিত্তিতে তা খুলে দিতে মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)। একই সঙ্গে আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের তালিকা পাঠাতেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আজ শুক্রবার এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে মাউশি।

আগের দিন বৃহস্পতিবার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান এক ভার্চ্যুয়াল সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন, ১১ জুলাই থেকে দেশের ২৩ জেলায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

মাউশির বিজ্ঞপ্তিতে বন্যাদুর্গত এলাকায় অবস্থিত মাউশির আওতাধীন সব দপ্তর ও সরকারি-বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের স্থানীয় প্রশাসন বা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়ে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করতে নির্দেশ দেওয়া হয়।

এ ছাড়া বন্যার কারণে যদি কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্ত হয়, তাহলে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ার পর দ্রুত সময়ের মধ্যে তার তথ্য দিতেও বলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন